শুক্রবার, জানুয়ারি ১৮, ২০১৯
Home Blog Page 106

নির্বাচনের দোহাই দিয়ে সন্ত্রাসীদের মুক্ত রাখা যাবে না: হানিফ

মাহবুব উল আলম হানিফ

‘তিন সিটি করপোরেশন নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে’ বিএনপির এ অভিযোগ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপি

নির্বাচনের দোহায় দিয়ে তাদের দলে যেসব সন্ত্রাসী ও যাদের বিরুদ্ধে নাশকতার অভিযোগ রয়েছে তাদেরকে প্রতিষ্ঠিত করার চেষ্টা করছে।

আজ রোববার সকালে কুষ্টিয়ার পিটিআই রোডে নিজ বাসভবনের সামনে একটি বেসরকারি টেলিভিশনের বর্ষপূর্তির কেককাটা অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

হানিফ বলেন, নির্বাচনকালীনই হোক আর অন্য সময়েই হোক সন্ত্রাসীদের প্রত্যেককে আইনের আওতায় এনে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।

তিনি বলেন, যখনই কোনও নির্বাচনে পরাজয়ের শঙ্কা দেখা দেয় তখনই বিএনপি সেই নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য অজুহাত হিসেবে আগে থেকেই মিথ্যাচার করে।

এসময় কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হাজি রবিউল ইসলাম, কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এসএম মেহেদী হাসান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সদর উদ্দিন খান, সাধারণ সম্পাদক আজগর আলী, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব ও সাংবাদিক ইউনিয়ন কুষ্টিয়ার সভাপতি রাশেদুল ইসলাম বিপ্লবসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

কয়েক বছর পর ঢাকায় আর বসবাসের প্রয়োজন হবে না: প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন- ‘আর কয়েক বছর পর মানুষের ঢাকায় আর বসবাসের প্রয়োজন হবে না। মানুষ বাইরে থেকে এসে ঢাকায় কাজ করবে, আবার চলে যাবে। সেই পরিকল্পনা নিয়েই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।’

শনিবার (২৮ জুলাই) বাড্ডা নর্থ ইউলুপ উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন- ‘মাত্র এক ঘণ্টায় ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম পৌঁছানো যাবে ট্রেনে, এমন দ্রুতগামী বা বুলেট ট্রেন চালু করবো। এই ট্রেন ঢাকা টু চট্টগ্রাম, ঢাকা টু সিলেট, ঢাকা টু রাজশাহী, ঢাকা টু দিনাজপুর, ঢাকা টু বরিশাল, এমনকি ঢাকা টু কলকাতাও চালু করবো।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকা শহরে মানুষের বসবাস বাড়ছে। ঢাকায় অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের আগমনও বাড়ছে। ঢাকায় রিং রোড করার বাইরে রাজধানীজুড়ে ছোট ছোট শহর গড়ে তোলা হবে। এই শহরগুলো হবে বহুতল বিল্ডিং দিয়ে।

রাজধানীর সঙ্গে আশপাশের শহরের যোগাযোগ সহজ করার জন্য সরকার নানা প্রকল্প হাতে নিয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গাজীপুর, উত্তরা থেকে ২০ কিলোমিটার পথ ৩৮ মিনিটে পেরিয়ে যাত্রীদের মতিঝিলে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে মেট্রোরেল চালু করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এতে সাধারণ মানুষের জন্য ঢাকার বিভিন্ন যাতায়াত আরও সহজ হবে। গাজীপুর থেকে শাহজালাল বিমানবন্দর পর্যন্ত বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) রুট চালু হলে টঙ্গী ও উত্তরার সঙ্গে ঢাকা মহানগরীর যাতায়াত সহজতর হবে।

অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

এর আগে হাতিরঝিল সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পের বাড্ডা প্রান্তের ইউ আকৃতির গাড়ি পারাপার সেতু (ইউলুপ) উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। উদ্বোধনের পর গাড়িতে স্থাপনাটি ঘুরে দেখেন প্রধানমন্ত্রী। এরপরই এটি যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার প্রস্তুতি শুরু হয়।

উল্লেখ্য, ইউলুপটির দৈর্ঘ্য ৪৫০ ও প্রস্থ ১০ মিটার। এ জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৪০ কোটি টাকা। প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজ করে সেনাবাহিনীর ১৭ প্রকৌশল নির্মাণ ব্যাটালিয়ন (ইসিবি)। নির্মাণকাজের দায়িত্বে ছিল স্পেক্ট্রা ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড।

লাখ লাখ টন কয়লা ব্রিফকেসে করে নিয়ে যাবার মতো জিনিস না: মোশাররফ

খন্দকার মোশাররফ হোসেন

লাখ লাখ টন কয়লা উধাও হয়ে গেলো। এটা তো একটা ব্রিফকেসে করে নিয়ে যাওয়ার মতো কোনো জিনিস না। প্রধানমন্ত্রী এই মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী। তিনি ও প্রতিমন্ত্রী কেউ এ বিষয়ে কোনো কথা বলছেন না। এর মানে হলো তাদের মধ্যে কোনো চেইন অব কমান্ড নেই।

বললেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

শনিবার (২৮ জুলাই) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ-ভাসানী) আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

ড. মোশাররফ বলেন, প্রশাসন ও পুলিশকে ব্যবহার করে তিন সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জয় নিতে চায়। এরই মধ্যে প্রশাসনের ব্যবহারে সেটা স্পষ্ট হয়েছে। তিন সিটিতে ওয়ারেন্ট ছাড়া বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করার ক্ষেত্রে আদালত ও ইসির নিষেধাজ্ঞা থাকলেও গ্রেফতার চলছে।

পুলিশ বিএনপি নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে অন্য জেলায় গ্রেফতার দেখাচ্ছে। সেখানে ইসি ও উচ্চ আদালতের কথা মানছে না। তিনি বলেন, সিটি নির্বাচনে কেন্দ্রে আমাদের কোনো এজেন্ট যেতে পারবে না। গেলেও তাদের গলাধাক্কা দিয়ে বের করে দেওয়া হবে।

আগামী জাতীয় নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যখন অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হয় তখন সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রয়োজন হয়। আমাদের সুশীল সমাজ, প্রতিবেশী রাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ সবাই চায় একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন। এই অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন নিশ্চিত করতে হলে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে।

কারণ খালেদা জিয়া ও ২০ দলের অংশগ্রহণ ছাড়া বাংলাদেশে কোনো অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন হতে পারে না। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি কোনো নির্বাচন হয়নি। সেটা ছিল বয়কটের নির্বাচন।

সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য

বই
বই

 পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য

কতগুলো পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় আছে আমাদের দেশে? ৩৯টি। কিন্তু নাম? নামগুলো একসাথে মনে রাখা বেশ শক্ত। এখানে একসাথে সবগুলির নাম আর website Link দেয়া আছে। ৩৯টির কিছু নাম প্রায় অচেনা। শিক্ষার্থীর কাজে লাগতে পারে বিবেচনায় সব একত্রে উপস্থাপন করার চেষ্টা করা হয়েছে। দুইটির বাংলা নাম পাওয়া যায় নি। বাংলা করার চেষ্টা করা হযেছে (১২ নং, ৩৭নং)।

১.ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি, DU) ঢাকা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯২১ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯২১ Web Link : www.du.ac.bd

২.জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি, JU) সাভার।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৭০ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৭০ Web Link : www.juniv.edu

৩.জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি, JnU) ঢাকা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৫ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৮৫৮ Web Link : www.jnu.ac.bd

৪.খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় (খুবি, KU) খুলনা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৯১ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৯০ Web Link : www.ku.ac.bd

৫.রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি, RU) রাজশাহী।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৫৩ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৫৩ Web Link : www.ru.ac.bd

৬.চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি, CU) চট্টগ্রাম।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৬৬ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৬৬ Web Link : www.cu.ac.bd

৭.বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (BU) বরিশাল।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০১১ প্রতিষ্ঠাকাল: ২০১১ Web Link : www.barisaluniv.edu.bd

৮.কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (UC) কুমিল্লা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৬ প্রতিষ্ঠাকাল: ২০০৬ Web Link : www.cou.ac.bd

৯.জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় (KNU) ত্রিশাল, ময়মনসিংহ।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৫ প্রতিষ্ঠাকাল: ২০০৫ Web Link : www.jkkniu.edu.bd

১০.বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (BRU) রংপুর।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৮ প্রতিষ্ঠাকাল: ২০০৮ Web Link : www.brur.ac.bd

১১.ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয় (IU) কুষ্টিয়া।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৮০ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৮০ Web Link : www.iu.ac.bd

১২.বাংলাদেশ পেশাভিত্তিক বিশ্ববিদ্যালয় (BUP-Bangladesh University of Professionals) ঢাকা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৮ প্রতিষ্ঠাকাল:২০০৮ Web Link : www.bup.edu.bd

১৩.জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় (NU) গাজীপুর।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৯২ Web Link : www.nu.edu.bd

১৪.উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় (BOU) গাজীপুর।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৯২ Web Link : www.bou.edu.bd

১৫.বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয় (BUET) ঢাকা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৬২ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৬২ Web Link : www.buet.ac.bd

১৬.খুলনা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (KUET) খুলনা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৩ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৬৯ Web Link : www.kuet.ac.bd

১৭.রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (RUET) রাজশাহী।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৩ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৬৪ Web Link : www.ruet.ac.bd

১৮.চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (CUET) চট্টগ্রাম।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৩ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৬৮ Web Link : www.cuet.ac.bd

১৯.ঢাকা প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (DUET) গাজীপুর।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৩ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৮০ Web Link : www.duet.ac.bd

২০.বাংলাদেশ টেক্সটাইল বিশ্ববিদ্যালয় (BUTex) ঢাকা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০১০ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৭৮ Web Link : www.butex.edu.bd

২১.শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি, SUST) সিলেট।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৯১ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৮৭ Web Link : www.sust.edu

২২.পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (PSTU) পটুয়াখালী।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০০ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৭২ Web Link : www.pstu.ac.bd

২৩.পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (PUST) পাবনা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৮ প্রতিষ্ঠাকাল: ২০০৮ Web Link : www.pust.ac.bd

২৪.নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (NSTU) নোয়াখালী।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৬ প্রতিষ্ঠাকাল: ২০০৬ Web Link : www.nstu.edu.bd

২৫.হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (HSTU) দিনাজপুর।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৯৯ Web Link : www.hstu.ac.bd

২৬.মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (MBSTU) টাঙ্গাইল।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৯৯ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৯৯ Web Link : www.mbstu.ac.bd

২৭.যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (JUST) যশোর।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৮ প্রতিষ্ঠাকাল: ২০০৮ Web Link : www.just.edu.bd

২৮.বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (BSMRSTU) গোপালগঞ্জ।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০১১ প্রতিষ্ঠাকাল: ২০১১ Web Link : www.bsmrstu.edu.bd

২৯.বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (বাকৃবি- BAU) ময়মনসিংহ।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৬১ Web Link : www.bau.edu.bd

৩০.শের-ই-বাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (SAU) ঢাকা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০১ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৩৮ Web Link : www.sau.edu.bd

৩১.বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (BSMRAU) গাজীপুর।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৯৮ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৮৩ Web Link : www.bsmrau.edu.bd

৩২.সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় (SAU) সিলেট।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৬ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৯৫ Web Link : www.sau.ac.bd

৩৩.বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (BSMMU) ঢাকা।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ১৯৯৮ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৬৫ Web Link : http://www.bsmmu.edu.bd/

৩৪.চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি এবং প্রাণীবিজ্ঞান বিশ্ববিদ্যালয় (CVASU) চট্টগ্রাম।

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০০৬ প্রতিষ্ঠাকাল: ১৯৯৫ Web Link : www.cvasu.ac.bd

৩৫. রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় 
প্রতিষ্ঠাকাল: ২০১১

৩৬. ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় (IAU)
প্রতিষ্ঠাকাল: ২০১৩ Web Link : http://iau.edu.bd/

৩৭. বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মেরিটাইম বিশ্ববিদ্যালয় (BSMRMU)

বিশ্ববিদ্যালয় চালু : ২০১৪ প্রতিষ্ঠাকাল: ২০১৩ Web Link : http://www.bsmrmu.edu.bd/

৩৮. চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় 

৩৯. রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় 

 

বৃষ্টি হলে রাস্তা খারাপ হবেই: কাদের

আগামী ঈদুল আযহার আগে সকল রাস্তা মেরামত করতে সড়ক সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীদের নির্দেশ দিয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘রাস্তা ঠিক রাখতে হবে। বৃষ্টি হচ্ছে, যে কারণে রাস্তার পিচে উঠে যাচ্ছে। বৃষ্টি প্রকট হলে বা বন্যা হলে রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ হয়ে যাবে। আমাদেরকে ধরেই নিতে হবে বৃষ্টি হবে এবং রাস্তা খারাপ হবে। তখন তাৎক্ষণিকভাবে রাস্তা মেরামতের ব্যবস্থা করতে হবে।’

বৃহস্পতিবার (২৬ জুলাই) বিকেলে এলেনবাড়ি বিআরটিএ কার্যালয়ে ঈদযাত্রার প্রস্তুতি সভা শেষে তিনি সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

সড়কমন্ত্রী বলেন, ‘ঈদুল আযহার যাত্রায় সড়কে টানা বৃষ্টির কারণে ভোগান্তি হতে পারে। এমনকি দুর্ঘটনা নিয়েও ভয় রয়েছে। তাই ঈদযাত্রায় সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং হবে সড়ক ও জনপথ অধিদফতরের।’

উল্টো পথে গাড়ি চলাচলের ব্যাপারে কারও সঙ্গে আপোষ না করতে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন ওবায়দুল কাদের। পাশাপাশি ব্যাটারিচালিত কোনো যান যেন হাইওয়েতে না উঠে তার ব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা নিতে বলেন মন্ত্রী।

বামনী ডিগ্রি কলেজে তিন লাখ টাকা দান করলেন ইস্কান্দার মির্জা শামীম

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বামনী ডিগ্রী কলেজে শিক্ষাগত মান উন্নয়নের জন্য তিন লাখ টাকা দান করলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ কমিটির সহ সম্পাদক ইস্কান্দার মির্জা শামীম ।

সম্প্রতি শুক্রবার বিকেলে বসুরহাটে আওয়ামীলীগ দলীয় কার্যালয়ে বামনী ডিগ্রী কলেজের গর্ভনিং বডির সভাপতি ও বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জার কাছে এ অনুদানের চেক হস্তান্তর করেন ইস্কান্দার মির্জা শামীম ।

পলিটিক্সনিউজকে ইস্কান্দার  মির্জা শামীম বলেন, ‘ আমি এই এলাকার ছেলে। শিক্ষার মানে আরো উন্নয়ন হলে আমাদের ছাত্র ছাত্রীরা আরো উন্নতি করবে, আরো সমৃদ্ব হবে । এই জন্যই আপাতত যতটুকু পেরেছি করেছি, ভবিষৎতে আরো করার চিন্তা ভাবনা আছে । ‘

চেক হস্তান্তর করার সময় উপস্থিত ছিলেন বামনী ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ রাহবার হোসেন, বিশিষ্ট সাহাত্যিক রফিকুল ইসলাম চৌধুরী , বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সভাপতি নুরুল কবির জুয়েল প্রমুখ ।

‘আলো কি নেই?’

চারদিকে কেন জানি একটা অস্বস্তিকর, অন্ধকার পরিবেশ। আমরা যদি গোটা বিশ্বের দিকে তাকাই তাহলে যুদ্ধ, বিগ্রহ, হত্যা, অন্যায় চলছে। সত্যিকার অর্থেই আমরা ব্যথিত হই, বিপর্যস্ত হই। কখনও কখনও মনে হয় আসলে কি চারদিকে অন্ধকার? আলো কি নেই? অবশ্যই আলো আছে। আর এই আলোর সন্ধানেই আমরা এবং শিশুরা যাবো।

বললেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন হলরুমে সংগীত, নৃত্য, আবৃত্তি অভিনয়ে জাতীয় শিশু শিল্পী প্রতিযোগিতা ‘শাপলাকুড়ি’র পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, জিয়া শিশু একাডেমি আজকে আমাকে একটি ভিন্ন জগতে নিয়ে এসেছে। যদিও এই জগতটি আমার শৈশব, কৈশোর ও যৌবনের। আমি এই জগতেরই একজন মানুষ ছিলাম। আজকে এখানে শিশুরা যে পারফরমেন্স রেখেছে তা দেখে আমি অভিভূত হয়েছি। জিয়া শিশু একাডেমী দীর্ঘকাল ধরে কাজ করছে। উদীয়মান শিশুদের খুঁজে বের করে নিয়ে এসে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে যাতে ভালো করতে পারে সেই চেষ্টা করছে।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, তোমরা উড়ে যাও, পাখা বন্ধ কোরো না। একদিন না একদিন তোমরা তীরে পৌঁছাবেই। আমরা একটা ভালো বাংলাদেশ দেখতে পাবো।

সংগঠনের পরিচালক এম হুমায়ুন কবিরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন, কণ্ঠশিল্পী খুরশীদ আলম, জিনাত ফারহানা, চলচ্চিত্রকার ছটকু আহমেদ, সোহানুর রহমান সোহান, অভিনেত্রী চাঁদনী, ইভান শাহরিয়ার শোভা প্রমুখ।

মওদুদ কী করে আমার পদত্যাগ দাবি করেন : আইনমন্ত্রী

আনিসুল হক

সাবেক আইনমন্ত্রী ও বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদকে ‘পরিবর্তন’ করতে বিএনপিকে পরামর্শ দিয়েছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক। একই সঙ্গে তিনি প্রশ্ন করেছেন, মওদুদ আহমদ কী করে আমার পদত্যাগ দাবি করেন?

বৃহস্পতিবার রাজধানীর বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে ‘মধ্যস্থতার মাধ্যমে বিরোধ নিষ্পত্তির সংক্রান্ত কর্মশালা’র উদ্বোধন শেষে তিনি এ কথা বলেন।

কুষ্টিয়ার বিচারাঙ্গণে আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলার ঘটনায় তার (আইনমন্ত্রী) পদত্যাগ দাবি করায় মওদুদ আহমদের বিষয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্ন জবাবে তিনি এমন মন্তব্য করেন।

আইনমন্ত্রী বলেন, মওদুদ আহমদ মন্ত্রী থাকার সময় সারাদেশে বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছিল, তখন তো তিনি (মওদুদ আহমদ) সেই দায় নিয়ে পদত্যাগ করেননি। তাহলে ওনি কী করে আমার পদত্যাগ দাবি করেন?

আনিসুল হক বলেন, ‘আপনাদের হয়তো মনে আছে মওদুদ সাহেবের আমলে সারা বাংলাদেশে প্রত্যেকটা জজকোর্টে বোমা হামলা হয়েছিল। সেখানে দু’জন অত্যন্ত জ্ঞানী বিজ্ঞ বিচারক নিহত হয়েছিলেন। তখন কিন্তু মওদুদ সাহেব পদত্যাগ করেননি। এখন এসব প্রলাপ বকা তার অভ্যাস হয়ে গেছে। আমার মনে হয় বিএনপির ওনাকে পরিবর্তন করা উচিত।’

নির্বাচনকালীন সরকারের রূপ রেখা ও মন্ত্রী পরিষদের আকার কেমন হবে? -এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এ ব্যাপারটা প্রধানমন্ত্রী পরিষ্কার করবেন। এখনো সময় আসেনি। অক্টোবর এখনও অনেক দূর। আমি আপনাদের এই টুকু বলতে পারি, সময় মতো প্রধানমন্ত্রী আপনাদেরকে নিশ্চিত করবেন।

কুষ্টিয়ায় মাহমুদুর রহমানের হামলার ঘটনায় তিনি বলেন, ‘কোন আসামিকে কারা মেরেছে, সেটার ব্যাপারে আমি খবর রাখি না। দেশে আরও অন্যান্য জরুরি কাজ আছে।’

হামলার ঘটনা সাজানো নাটক উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ছাত্রলীগকে দায়ী করা হচ্ছে। ছাত্রলীগ অত্যন্ত কঠোরভাবে বলেছে তারা এর সঙ্গে জড়িত নয়।’

বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি খোন্দকার মুসা খালেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হকসহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার হিসেবে বেলালুর রহমানের যোগদান

পুলিশ

নবসৃষ্ট গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার হিসেবে যোগদান করেছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান।

গত ১৮ জুলাই’ ২০১৮ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত এক আদেশে তাকে গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের পুলিশ কমিশনার হিসেবে নিয়োগ করা হয়।

পাবনার চাটমোহর উপজেলার চড়পাড়া গ্রামের শিক্ষাবিদ মরহুম দেলমাহমুদ মিয়া এবং মাতা মরহুমা জসিমন নেছার ষষ্ঠ সন্তান ওয়াই এম বেলালুর রহমান। ১৯৬৯ সালের ০২ জানুয়ারি তিনি বগুড়ায় জন্ম গ্রহন করেন। তিনি বগুড়া জেলা স্কুল থেকে এস এস সি, সরকারী আযিযুল হক কলেজ থেকে এইচ এস সি, চট্টগ্রাম বিআইটি (বর্তমান চুয়েট) থেকে বিএসসি ইঞ্জিনিয়ারিং এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইবিএ থেকে এমবিএ ডিগ্রী লাভ করেন। পাঁচ ভাই ও এক বোনের মধ্যে বেলাল কনিষ্ঠ।

১৯৯২ সালে অনুষ্ঠিত বিসিএস পরীক্ষার মাধ্যমে পুলিশ ক্যাডারের জন্য নির্বাচিত হয়ে ওয়াই এম বেলালুর রহমান ১৯৯৫ সালে সহকারী পুলিশ সুপার পদে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেন । তিনি এসএসএফ (পিএম অফিস), সিএমপি, খাগড়াছড়ি, আরএমপি, খুলনা জেলার পুলিশ সুপার এবং এআইজিপি (টেলিকম) হিসেবে রাজারবাগ, নওগাঁর পুলিশ সুপার এবং ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের যুগ্ম কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন তিনি।

জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে পূর্ব তিমুর এবং আইভরিকোস্টে তিনি সুনামের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন । কর্মজীবনে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, ফ্রান্স, ইতালি, বেলজিয়াম, অস্ট্রেলিয়া, পূর্বতিমুর, সিঙ্গাপুর, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া, কম্বোডিয়া, থাইল্যান্ড, আইভোরিকোষ্ট, ঘানা, আরব আমিরাত, সৌদিআরবসহ বিভিন্ন দেশ ভ্রমণ করেন। ডাঃ প্রথমা রহমানের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়েছেন তিনি। সফল এ পুলিশ কর্মকর্তা দুই সন্তানের জনক।

তার বড় ভাই অধ্যাপক ডাক্তার জাহাঙ্গীর আলম কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ছিলেন, দ্বিতীয় ভাই মেজর জেনারেল মো. ফসিউর রহমান এনডিসি ঢাকা সেনানিবাসস্থ আর্মড ফোর্সেস মেডিকেল কলেজের কমান্ডান্ট, তৃতীয় ভাই ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. জালাল উদ্দিন চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক, একমাত্র বোন দেলেয়ারা মাহমুদ বগুড়া জাহিদুর রহমান মহিলা ডিগ্রি কলেজের সহকারী অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত অবস্থায় ২০১২ সালে মৃত্যুবরণ করেন, চতুর্থ ভাই হেলাল উদ্দিন ভূমি উন্নয়ন কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত আছেন।

ওয়াই এম বেলালুর রহমান নবসৃষ্ট গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের এ ইউনিটকে গুছিয়ে কার্যোপযোগী করা ও পরবর্তীতে নগরবাসীকে প্রত্যাশিত সেবা প্রদান করার লক্ষ্যে সকলের কাছে দোয়া এবং সহযোগিতা প্রত্যাশা করেছেন।

এ সরকারের পতন নিশ্চিত: নোমান

সংঘটিত হয়ে রাজপথে নামলেই এ সরকারের পতন নিশ্চিত দাবি করে ‌বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ আল নোমান বলেছেন, ‘তাই আমা‌দেরকে সংঘ‌টিত হ‌য়ে রাজপ‌থে‌ নাম‌তে হ‌বে, দে‌শে গণতন্ত্র ফি‌রি‌য়ে আন‌তে হ‌বে।’

বৃহস্পতিবার (২৬ জুলাই) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ও সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের আহ্বায়ক প্রকৌশলী মাহমুদুর রহমানের ওপর ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে অ্যাসোসিয়েশন অব ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশ (এ‍্যাব) পেশাজীবী সমাবেশের আয়োজন করে।

এ সময় তিনি বলেন, ‘রাজপথের আন্দোলন ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। দেশে গণতন্ত্র ফি‌রি‌য়ে আন‌তে হ‌লে জনগ‌ণের ভোটা‌ধিকার ফি‌রি‌য়ে আন‌তে হ‌লে এ সরকা‌রের পতন জরু‌রি।’

মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলার নিন্দা ও প্রতিবাদ জানি‌য়ে বিএন‌পির এ নেতা ব‌লেন, ‘আজ হামলার ৩-৪দিন অতিবাহিত হওয়ার পরও হামলাকারীরা প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে, এটা জাতির জন্য লজ্জাজনক।’

দেশে আজ গণতন্ত্র নেই উল্লেখ করে নোমান বলেন, ‘সরকার দেশকে অর্থনৈতিকভাবে ধ্বংস করে দিয়েছে। এমন কোনো খাত নেই, যেখানে দুর্নীতি তারা করেনি। শেষপর্যন্ত ব্যাংক লুট, সোনা লুট, কয়লা লুট করেছে তার দোসররা।’

এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান চুন্নু, প্রকৌশলী জহুরুল ইসলাম, কৃষিবিদ শামীম, অধ্যাপক সেলিম ভূঁইয়া, জিয়া নাগরিক ফোরামের (জিনাফ) সভাপতি লায়ন মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন প্রমুখ।

বিএনপির কাজ হচ্ছে বিদেশিদের কাছে নালিশ দেয়া : হাছান মাহমুদ

বিএনপি নালিশ দেয়ার জন্য বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করেছে। তাদের কাজ হচ্ছে দেশের বিষয়ে বিদেশিদের কাছে নালিশ দেয়া। এটা আমাদের জন্য দুর্নাম।

বললেন আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ।বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে মাওলানা ভাসানী ঐক্যজোট আয়োজিত ‘মহান স্বাধীনতা দিবস ও চলমান রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, কূটনীতিকদের কাছে গিয়ে বিএনপি জাতিকে অপমান করেছে। নালিশ যদি থাকে জনগণের কাছে দিন, বিদেশিদের কাছে নয়। রাজনৈতিক মতপার্থক্য থাকবেই। সেটা আমরাই আলোচনা করে সমাধান করব। এটা আমাদের ঘরোয়া ব্যাপার।

হাছান মাহমুদ বলেছেন, আশা করি, বিএনপি আইনের পথে হেঁটে খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার চেষ্টা করবে। খালেদা জিয়ার এ  পরিণতি আমরাও কামনা করিনি। দুর্নীতিবাজ খালেদা জিয়া ও তার ছেলে তারেক রহমানকে রক্ষা করার রাজনীতি থেকে সরে আসুন।

মওদুদ আহমদ সাহেবদের ওপর খালেদা জিয়া আর তারেক রহমানের কোনও আস্থা নেই। সে জন্যই তারা এখন ব্রিটিশ আইনজীবী ভাড়া করেছেন। যা আবার যুদ্ধাপরাধীদের আইনজীবী।ন্যাপ ভাসানী ও মাওলানা ভাসানী ঐক্যজোটের সভাপতি এম এ ভাসানীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও অনেকে বক্তব্য রাখেন।

সরকার আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত স্বৈরাচার : খন্দকার মোশাররফ

বর্তমান সরকার আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত স্বৈরাচার। তারা হিটলার ও গোয়েবলসের মতো মিডিয়া নিয়ন্ত্রণ করছে। এ স্বৈরাচার সরকারের কবল থেকে জনগণ মুক্তি চায়। বললেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন।

বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক প্রকৌশলী মাহমুদুর রহমানের ওপর কুষ্টিয়ার আদালত প্রাঙ্গণে হামলার প্রতিবাদে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে) ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) (একাংশ) প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে অবস্থান কর্মসূচির আয়োজন করে।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার ফ্যাসিবাদী, জনগণই এ ফ্যাসিবাদী সরকারের পতন ঘটাবে। জনগণ এ স্বৈরাচারী সরকারের একদলীয় বাকশালী শাসন আর মেনে নেবে না।

তিনি আরও বলেন, জনগণের নেত্রী, দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে সরকার ভয় পায়। এ জন্যই তাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে আটকে রেখেছে।

মোশাররফ বলেন, দেশের মানুষ বারবার প্রতারিত হতে চায় না। সময় আসছে, জনগণই স্বৈরাচারী ফ্যাসিবাদী সরকারের পতন ঘটাবে। এ সরকার পতনের মাধ্যমে মাহমুদুর রহমানের রক্তের প্রতিশোধ নেয়া হবে। আমরা জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করছি। তাদের পাশে থাকব। সরকারের পরিকল্পনায় মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলা হয়েছে। আর তারা এখন বলছে, যে হামলা করেনি।

তাহলে হামলা করল কে? স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কী ব্যবস্থা নিয়েছেন? ওবায়দুল কাদের কী পদক্ষেপ নিয়েছেন? সবাই বলছে, হামলা করেনি। তাহলে হামলা করল কে? অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার না করলে আমাদের বৃহত্তর কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।

সভায় বিএফইউজের (একাংশ) সভাপতি রুহুল আমিন গাজী, ডিইউজের সহ-সভাপতি শাহীন হাসনাতসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

জনপ্রিয়

গরম খবর