শুক্রবার, এপ্রিল ১৯, ২০১৯
Home Blog Page 5

১৪ লাখ প্রতিবন্ধী শিশুকে ভাতা দেওয়া হবে : প্রধানমন্ত্রী

প্রত্যেক প্রতিবন্ধীকে ভাতা দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ  মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) ১২তম বিশ্ব অটিজম দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

এর আগে মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টায় বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে উপস্থিত হন প্রধানমন্ত্রী। তিনি ১২তম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস-২০১৯ এর উদ্বোধন করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘অটিজমে আক্রান্ত শিশুরা সমাজের বোঝা নয়। প্রত্যেক প্রতিবন্ধী ভাতা পাবে। আগামী বাজেটে ১৪ লাখ প্রতিবন্ধী শিশুকে ভাতা দেওয়ার ব্যবস্থা করবে সরকার।’

তিনি আরও বলেন, ‘প্রতিবন্ধীদের সুরক্ষার জন্য সবসময় বাংলাদেশ সচেতন। স্বাধীনতার পর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই প্রতিবন্ধীদের তাদের সুরক্ষা, তাদের অধিকার নিশ্চিত করবার পদেক্ষপ নিয়েছিলেন। তিনি প্রত্যেকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যাতে প্রতিবন্ধীরা পড়াশোনার সুযোগ পায় সেই সুযোগটাও তিনি তৈরি করে দেওয়ার পদক্ষেপ নিয়েছেন।’

এ ছাড়া প্রতিবন্ধীদের সুরক্ষা আইন প্রণয়ন করছে সরকার। পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর অধিকার আদায়ে সবাইকে এগিয়ে আসারও আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অটিজম শিশুদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণ করছে সরকার। প্রতিটি বিভাগে অটিজিম পরিচর্যা কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে।’

ভবনে পরিদর্শনে মাঠে নামছে রাজউকের ২৪ টিম

রাজধানীর কোন এলাকায় কোন বিল্ডিং পরিকল্পনা পরিপন্থি হয়েছে, নকশা অনুমোদন বা বিল্ডিং কোড মানা হয়নি এমন বহুতল ভবনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে রাজধানী উন্নয়ন কতৃপক্ষের (রাজউক) ২৪ টিম মাঠে নামছে বলে জানিয়েছেন গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

রবিবার (৩১ মার্চ) দুপুরে রাজউক অডিটরিয়ামে এক বৈঠকে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি। বৈঠকে রাজউক চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় এবং রাজউকের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

গত বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) বনানীর ১৭ নম্বর রোডের এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এবং ঢাকা শহরের বিদ্যমান ভবণগুলো বর্তমান অবস্থা সম্পর্কে আশু করণীয় বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে এই  বৈঠকের আয়োজন করা হয়।

মন্ত্রী বলেন, ‘যেসব ভবনে পরিকল্পনা নকশা অনুযায়ী করা হয়নি সেসব ভবনের বিরুদ্ধে আমরা ব্যবস্থা গ্রহণ করব। নিয়মের বাইরে যেসব থাকবে সেগুলোর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। ১৯৯৬ থেকে ২০০৮ এর পূর্ববর্তী সময়ে অবস্থায় অগ্নি নির্বাপক ব্যবস্থা বা গ্যারেজ রাখার কোনো বিধান ছিল না। সে সকলের ভবণের জন্য নতুন করে সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘প্রতিটি বিল্ডিং যারা ব্যবহার করবেন তারা ভাড়াটিয়া হিসেবে বা সেখানকার মানুষ হিসেবে আগে দেখে নিতে হবে যে অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা আছে কি না। অতিরিক্ত সিঁড়ি লাগানো আছে কিনা বা সকল কিছু মেনে বিল্ডিং করা হয়েছে কিনা, যদি এসব নিয়ম মেনে না করা হয় তাহলে আপনি সেই সেই ভবনটি ব্যবহার করবেন না।’

শ ম রেজাউল বলেন,  ‘আমাদের তদন্ত কমিটির রিপোর্ট হওয়ার পর আমরা এটা জনসম্মুখে জাতীয় পত্রিকায় টেলিভিশনে বিজ্ঞাপন আকারে দরকার হয় প্রকাশ করব। কারণ দেশের মানুষের জানা দরকার অর্থলোভী মানুষরূপী যারা এভাবে অবৈধভাবে ভবন নির্মাণ করে জানমালের নিরাপত্তা রক্ষা করেনি তাদের চেহারা দেশবাসীর দেখা উচিত।’

তিনি বলেন, ‘রাজউকের অভ্যন্তরীণ ব্যবস্থাপনায় সকল রেকর্ড থাকতে হবে। যেসব রেকর্ড পাওয়া যাচ্ছেনা মিসিং আছে সেইসব ভবন বিষয়ে আমরা আবার পরিদর্শন করে রেকর্ডটা নথিভুক্ত করবো। পহেলা মে থেকে রাজউকের সকল সেবা ডিজিটাইজেশন হবে এর মাধ্যমে জনগণের ভোগান্তি দূর হবে এবং জনবান্ধব প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে।’

মন্ত্রী বলেন, ‘বিল্ডিং এর কোন দুর্ঘটনা ঘটলে আমরা শুধুমাত্র বিল্ডিং মালিক এবং ডেভেলপার কোম্পানির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতাম আগে। কিন্তু এখন আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিব।’

ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের বিকল্প নেই : দুদু

জামিনে মুক্তি পাচ্ছেন বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু

খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানকে দেশে ফেরাতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের বিকল্প নেই বলে জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু।

রোববার (৩১ মার্চ) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ওলামা দলের সদ্য প্রয়াত সভাপতি আলহাজ হাফেজ মাওলানা আব্দুল মালেক এবং প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আলহাজ মো. মোয়াজ্জেম হোসেনের রুহের মাগফেরাত কামনায় আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এ কথা বলেন।

ওলামা দলের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা নেছারুল হকের সভাপতিপত্বে সভায় দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, নির্বাহী সদস্য আবু নাসের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রভাবশালীর একটি অবৈধ ভবন রাজউক পারলে ভেঙে দেখাক: সাঈদ খোকন

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন বলেছেন, রাজধানীতে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে সাড়ে ৫ হাজার ভবন। রাজউক চাইলেই তা ভাঙা অসম্ভব। সাধারণ নাগরিকরা বিশ্বাস করে না এই অবৈধ ভবন ভেঙে রাজউক নতুন শহর উপহার দেবে। তাই রাজউক প্রভাবশালীর একটি অবৈধ ভবন পারলে ভেঙে দেখাক। তাহলেই বুঝবো রাজউকের সদিচ্ছা ও আন্তরিকতা আছে।

রাজধানীর কলাবাগানের ইয়াকুব সাউথ সেন্টারে স্টেট ইউনিভার্সিটি আয়োজিত ‘অগ্নিকাণ্ড: কারণ ও করণীয়’ শীর্ষক গোলটেবিল আলোচনায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে রোববার তিনি একথা বলেন।

মেয়র সাঈদ খোকন আরও বলেন, রাজধানীতে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে সাড়ে ৫ হাজার ভবন। রাজধানীর এসব অবৈধ ভবন ভাঙার কি ক্যাপাসিটি রয়েছে রাজউকের? ভেঙে সেখানে নতুন করে গড়ার সাধ্য কি আছে? ভাঙতে গেলেও তো সেখানে যে ময়লা হবে তার ডাম্পিং কোথায় করবে? এটা তো অসম্ভব ব্যাপার। কিন্তু এই ভবনগুলো তো একদিনে গড়ে ওঠেনি। আইন অমান্য করে কেউ না কেউ তো এই ভবনগুলো অবৈধভাবে করেছে। অন্য কোনও দেশের নাগরিক করেনি। আমাদের নাগরিকরাই করেছে।

মেয়র আরও বলেন, ‘যখন ভবনগুলো নির্মাণ হচ্ছিল তখন বাধা দেয়া ও আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ করা উচিত ছিল। আজকে এই ভবনগুলো যদি ভাঙতে চাই তা তো অসম্ভব। এই যে সমস্যা তা একদিনে সৃষ্টি হয়নি। বছরের পর বছর অব্যবস্থাপনা, অবহেলা আর অক্ষমতার মধ্য দিয়ে তৈরি হয়েছে। আজ রাজউক এই সাড়ে ৫ হাজার ভবন ভাঙবে- এটা সাধারণ নাগরিকরা বিশ্বাসও করে না। কিন্তু দু-একজন প্রভাবশালীর অবৈধ ভবন ভেঙে তো রাজউক প্রমাণ দিতেই পারে যে তারা পারে।’

সাঈদ খোকন বলেন, ঢাকা পৃথিবীর সবচেয়ে ঘনবসতির দেশ। ঢাকায় প্রতিদিন নতুন মানুষের আগমন ঘটে ৬ হাজার। ঢাকার মধ্যে পুরান ঢাকা আরও বেশি ঘনবসতিপূর্ণ। ঢাকার প্রবৃদ্ধি উদ্বেগজনক হারে বাড়ছে। কিন্তু অনেকেই শহুরে জীবনে অভ্যস্ত নন।

তিনি আরও বলেন, সচেতনতা সবার জন্যই। সমাজের অনেক মানুষ রয়েছে শিক্ষিত দামি গাড়িতে ঘুরছে। কিন্তু অসচেতন মনে পানির বোতল, ব্যবহৃত টিস্যু রাস্তায় ছুড়ে ফেলে দিচ্ছেন। শিক্ষিত মানুষের মধ্যে যদি বোধ খুঁজে না পাই তাহলে অর্ধশিক্ষিত কিংবা অশিক্ষিত মানুষকে দোষ দিয়ে কি লাভ?’

অগ্নিকাণ্ডের ক্ষেত্রে সচেতনতার বিকল্প নেই বলে জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘চুরিহাট্টার অগ্নিকাণ্ডের পর সবাইকে সচেতন হবার অনুরোধ জানানো হয়। সবাই আগ্রহীও হয়। দ্রুত সময়ের মধ্যে কেমিক্যাল সরাতে বলা হয়। এরপর কিন্তু আরও একটি আগুনের ঘটনা ঘটেছিল। প্রস্তুতি থাকায় বড় ধরনের কিছু ঘটেনি। এজন্য সচেতনতা বৃদ্ধি জরুরি।’

সিটি করপোরেশনের আইনগত অক্ষমতার কথা জানিয়ে মেয়র বলেন, ‘চুরিহাট্টায় আগুনের পর বলা হলো, সিটি করপোরেশন কেন মামলা করবে না। যৌক্তিক কথা। কিন্তু সিটি করপোরেশনের ক্ষমতায় সেটা নেই। ট্রেড লাইসেন্স ছাড়া ব্যবসা ও দোকান করার কারণে সর্বোচ্চ ৫ হাজার টাকা জরিমানা করতে পারে সিটি করপোরেশন, মামলা করতে পারে না।’
মেয়র আরও বলেন, ‘আমাদের সেবা দানের ক্ষেত্রে সবগুলো সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সমন্বয় নেই। সময় এসেছে সবাই বসে সমন্বয় করা। সচেতনতা বৃদ্ধি করা। তবেই সম্ভব ঘুরে দাঁড়ানো।’

স্টেট ইউনিভার্সিটির বিজ্ঞান অনুষদের ডিন স্থপতি অধ্যাপক শামসুল ওয়ারেসের সভাপতিত্বে সভা সঞ্চালনা করে অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস। গোলটেবিল আলোচনায় আরও বক্তব্য রাখেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের পরিচালক (অপারেশন অ্যান্ড মেইনটেইন্যান্স) মেজর শাকিল নেওয়াজ, বুয়েটের স্থাপত্য বিভাগের প্রধান ড. নাসরিন হোসাইন, বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. মফিজুর রহমান, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. ইয়াসির আরাফাত খান, বাংলাদেশ অ্যাসিড মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ পলাশ, স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের সভাপতি ড. কামরুজ্জামান মজুমদার, এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি ও দোকান মালিক সমিতির সভাপতি মো. হেলাল উদ্দিন প্রমুখ।

রূপায়ন গ্রুপের চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে : ডিবি

রাজধানীর বনানীতে এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় দায়ের করা মামলার পলাতক আসামি রূপায়ন গ্রুপের চেয়ারম্যান লিয়াকত আলীকে খানকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। এ মামলায় ইতিমধ্যে এস এম এইচ আই ফারুক ও তাসভির উল ইসলামকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আজ রোববার দুপুরে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার আব্দুল বাতেন এসব কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘অগ্নিকাণ্ডের এমন ঘটনা প্রকৃত অর্থে কে ঘটালো, কারা দায়ী বা কাদের গাফিলতি ছিল-এগুলোর বিশ্লেষণ কখনো হয় না। এসব বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটলে কী কী ব্যবস্থা ও উপকরণ থাকা উচিত-এ প্র্যাকটিস অনেক ক্ষেত্রেই নেই।’

পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘রাজউক, মালিকপক্ষ এবং ডেভেলপার কোম্পানিদের মধ্যে কার কী ভূমিকা ছিল দেখা হবে। সকল অপরাধগুলো পর্যালোচনা করে তদন্ত শেষে তাদের গাফিলতি ও অপরাধ চিহ্নিত করে আদালতে অভিযোগপত্র দেওয়া হবে।’

আব্দুল বাতেন আরও বলেন, ‘ভবন নির্মাণের আগে ও পরে কার কী ভূমিকা ছিল সেসব আমরা তুলে ধরব। প্রত্যেকটা বিষয় পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে বিশ্লেষণ করা হবে যেন কেউ পার পেয়ে না যেতে পারে। একটি ভবন নির্মাণে কী কী নীতিমালা রয়েছে সেগুলো রাজউকের পক্ষ থেকে নজরদারি করে। যে এই ইন্সপেকশান করে তার দায়-দায়িত্ব সবচেয়ে বেশি, যে নিয়ম মেনে সেটি করা হয়েছিল কি না। এ ছাড়া, ফায়ার সেফটির বিষয়গুলোতে ফায়ার সার্ভিসের কাছ থেকে ছাড়পত্র নিতে হয়। এ ভবনে কী কী ব্যত্যয় ছিল, সেসব শনাক্ত করা হবে।’

ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার বলেন, ‘সাধারণত একটি ভবন ব্যবহার উপযোগী করে ডেভেলপার কোম্পানি হস্তান্তর করে থাকে। এফ আর টাওয়ারের ক্ষেত্রে ডেভেলপার কোম্পানি রূপায়ন অন্য মালিকদের রেজিস্ট্রেশন করে বুঝিয়ে দেয়নি। এ ক্ষেত্রে ভবনে রূপায়নেরও মালিকানা রয়েছে।’

অনুমোদন ও নজরদারিতে রাজউকের গাফিলতি থাকতে পারে। অথচ তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ না আনার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘রাজউকের কার্যক্রমটি তার অথোরিটি নিশ্চিত করবে। কেউ নিয়ম বহির্ভূত কোনো কাজ করলে তাদের বিরুদ্ধে দাপ্তরিক ব্যবস্থা নিবে। তবে কেউ সরাসরি ক্রিমিনাল অফেন্সে জড়িত থাকলে তদন্তে যদি তাদের নাম আসে, তাহলে তাদেরকে অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে।’

মামলার তদন্তে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না জানিয়ে ডিবির ঊর্ধ্বতন এই কর্মকর্তা বলেন, ‘তদন্তে অপরাধ অনুযায়ী সবাইকেই আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে।’

আরেক প্রশ্নের জবাবে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘এখানে ভবন ভেঙে পড়েনি, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তাই ভবনে অগ্নিকাণ্ড ব্যবস্থাপনায় কী কী ঘাটতি ছিল, সেসব বিষয়গুলো বিবেচনায় আনা হবে।’

নৌকায় জালভোট, সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তাসহ আটক ২

Election Commission Bangladesh-বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন
Election Commission Bangladesh-বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন

চতুর্থ ধাপের উপজেলা নির্বাচনে টাঙ্গাইলের বাসাইলের একটি ভোটকেন্দ্রে নৌকা মার্কায় জালভোট দেয়ার অভিযোগে সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তাসহ দুজনকে আটক করেছে পুলিশ।

আজ রোববার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাসাইল দক্ষিণপাড়া কেন্দ্র থেকে তাদের আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলেন- কাঞ্চনপুর ছনকাপাড়ার বাসিন্দা রাশেদ হৃদয় (২৫) এবং ওই কেন্দ্রের সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তা ও উপজেলার সৈদামপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পারভীন সুলতানা।

প্রিজাইডিং কর্মকর্তা কনক কান্তি দেবনাথ বলেন, রাশেদ নামে একজন নৌকা মার্কায় জালভোট দিচ্ছিলেন। এসময় অন্যান্য প্রার্থীর এজেন্টরা অভিযোগ করলে ১০টি ব্যালট পেপারসহ তাকে আটক করা হয়।

তিনি আরও বলেন, জালভোটে সহায়তা করার অভিযোগে সহকারী প্রিজাইডিং কর্মকর্তা পারভীন সুলতানাকেও আটক করা হয়েছে। আটককৃতদের ভ্রাম্যমাণ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

চতুর্থ ধাপে টাঙ্গাইলের ১২টি উপজেলায় সকাল ৮টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। গোপালপুর, ধনবাড়ী ও মধুপুর এই তিনটি উপজেলায় কোন প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় চেয়ারম্যান প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছে। এছাড়াও ৯টি উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে ৩৮ জন, ১২টি উপজেলায় ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬৫ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৫৩ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

১২ উপজেলায় মোট ভোটার রয়েছেন ২৭ লাখ ৭৯ হাজার ৬৯৭ জন। এরমধ্যে পুরুষ ভোটার ১৩ লাখ ৭৫ হাজার ৯৫৫ জন এবং মহিলা ভোটার ১৪ লাখ ৩ হাজার ৭৪২ জন। মোট ভোট কেন্দ্র ১০০৬টি এবং ভোট কক্ষ ৬৭০৪টি।

টাঙ্গাইল জেলা নির্বাচন অফিসার এ.এইচ.এম কামরুল হাসান জানান, ১২টি উপজেলায় ৩৭ প্লাটুন বিজিবি, পুলিশের ২০৩টি স্ট্রাইকিং ফোর্স, ৫৬ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ করা হয়েছে ও প্রতি উপজেলায় একটি করে র‌্যাবের টহল টিম দায়িত্ব পালন করবে।

বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিতরা হলেন, মধুপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ছরোয়ার আলম খান, ধনবাড়ী উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হারুনার রশিদ, গোপালপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ইউনুছ ইসলাম তালুকদার

শিল্পের বিকাশে বড় বাধা ব্যাংক ঋণের জটিলতা : প্রধানমন্ত্রী

ব্যাংক ঋণের জটিলতাই শিল্পের বিকাশের জন্য বড় বাধা বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ রোববার সকালে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শিল্পমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘শিল্পের বিকাশে ব্যাংক ঋণ বড় জটিলতার কারণ। ব্যাংক ঋণে সুদের হার কেন কমানো হচ্ছে না, তা খতিয়ে দেখা হবে।’

টেকসই শিল্পখাতের বিকাশে শিল্প উদ্যোক্তাসহ দেশি-বিদেশি ব্যবসায়ী বিনিয়োগকারীদের আকৃষ্ট করতে দেশে এই প্রথমবারের মতো আয়োজন করা হয়েছে জাতীয় শিল্পমেলার।

এ সময় শিল্পখাতকে বহুমুখীকরণ করার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘সময়মতো ঋণ পরিশোধ করাও শিল্প উদ্যোক্তাদের দায়িত্ব।’

শিল্পখাতকে দেশের দেশের অর্থনীতির মূল চালিকাশক্তি হিসেবেও মনে করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘একসময়ের কৃষিপ্রধান এই বাংলাদেশ আজ বিশ্বায়নের ধারায় ক্রমেই সমৃদ্ধ হচ্ছে শিল্পখাতের নানামাত্রিক প্রসারে ‘

আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘বর্তমানে দেশের মোট দেশজ উৎপাদনে শিল্পখাতের অবদান গিয়ে ঠেকেছে ৩৩ দশমিক ৭১ শতাংশে। লক্ষ্য রয়েছে ২০২১ সালের মধ্যে এই ধারা উন্নীত করা হবে ৪০ শতাংশে।’

শিল্পকে বহুমূখীকরণের আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘উদ্যোক্তাদের মনোযোগী হতে হবে পরিবেশ রক্ষা কার্যক্রমেও। থাকতে হবে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা।’

এফআর টাওয়ারের সঙ্গে তাসভিরের সম্পর্ক কী, প্রশ্ন রিজভীর

বনানীর এফআর টাওয়ারে আগুনের ঘটনায় বিএনপি নেতা তাসভির উল ইসলামকে গ্রেপ্তার উদ্দেশ্যমূলক বলে মন্তব্য দলের সিনিয়র যুগ্ন মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। আজ রোববার সকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক স্মরণ সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, ‘এই বিল্ডিংয়ের সঙ্গে তাসভিরের সম্পর্ক কী? ওইটার তো তিনি মালিক নন। ওই বিল্ডিংয়ের ডেভলপার তো তিনি নন। তাহলে কেন তাকে গ্রেপ্তার করলেন রাতে। জনগণকে দেখানো যে যা কিছু হয়, যা কিছু ঘটে সবকিছুর সঙ্গে বিএনপি জড়িত। ’

উদোরপিন্ডি বুদোর ঘাড়ে চাপানোই সরকারের কাজ বলেও মন্তব্য করেন বিএনপির এই নেতা।

গত বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা ৫৫ মিনিটে বনানীতে ২৩ তলা এফআর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট আগুন নেভানো ও হতাহতদের উদ্ধারের কাজ করে। পাশাপাশি সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনী, নৌবাহিনী, পুলিশ, র‌্যাব, রেড ক্রিসেন্টসহ ফায়ার সার্ভিসের প্রশিক্ষিত অনেক স্বেচ্ছাসেবী অগ্নিনির্বাপণ ও উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। প্রায় সাড়ে ছয় ঘণ্টা চেষ্টার পর রাত সাতটায় আগুন নেভানো সম্ভব হয়। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৬ জন মারা গেছেন।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় করা মামলায় গতকাল শনিবার রাতে ভবনের বর্ধিত অংশের মালিক বিএনপি নেতা তাসভির উল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে ডিবি পুলিশ। এদিন রাত ১০টা ৪৫ মিনিটের দিকে তাসভিরকে তার বারিধারার বাসা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। অন্যদিকে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা থেকে রাতে গ্রেপ্তার হন জমির মালিক এস এম এইচ আই ফারুক (৬৫)।

‘উদ্ধারকাজে খুঁত না পেয়ে মিথ্যাচার করছে বিএনপি’

মাহবুব উল আলম হানিফ

রাজধানীর বনানীতে এফ আর টাওয়ারে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় উদ্ধারকাজে কোনো খুঁত না পেয়ে বিএনপি নেতারা সরকারের মিথ্যাচার করছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম  হানিফ।

আজ রোববার সকালে রাজধানীর ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে তিনি একথা বলেন।

হানিফ বলেন, ‘উদ্ধারকাজে কোনো খুঁত না পেয়ে তারা (বিএনপি) এখন বলছেন- এই সরকারের আমলে এই ফায়ার বিগ্রেডকে আধুনিকায়ন করার জন্য তেমন কোনো উদ্যোগ নেয়নি। যেটা একেবারেই মিথ্যাচার এবং একেবারেই সত্যের অপলাপ ছাড়া আর কিছু না।’

তবে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় কেউ ব্যর্থতার পরিচয় দিলে তাকে শাস্তি পেতে হবে বলেও জানান মাহবুবউল আলম  হানিফ।

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, ‘অগ্নিকাণ্ডের ঘ্টনায় সরকারের কেউ ব্যর্থতার পরিচয় দিয়ে থাকলে তাকে শাস্তি পেতে হবে। অগ্নিকাণ্ডের কোনো দুরভিসন্ধি থাকলে তাও খতিয়ে দেখা হবে।’

শিল্পায়ন ছাড়া কর্মসংস্থান সম্ভব নয় : প্রধানমন্ত্রী

বাংলাদেশে শিল্পায়ন ছাড়া কর্মসংস্থান সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) জাতীয় শিল্পমেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশে শিল্পায়ন ছাড়া কর্মসংস্থান কখনো সম্ভব না। আমাদের অর্থনীতি মূলত কৃষিভিত্তিক। তবে কৃষিভিত্তিক শিল্প আমাদের দরকার এজন্য যে, কৃষি থেকে আমাদের খাদ্য চাহিদা মিটায়। আর খাদ্যের চাহিদা বিশ্বে থাকবেই। খাদ্য চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। খাদ্য চাহিদার বাজারও সম্প্রসারিত হচ্ছে। সেই ক্ষেত্রে একদিকে যেমন শিল্পায়ন প্রয়োজন, অপরদিকে আমাদের কৃষিপণ্য ও খাদ্যপণ্য প্রক্রিয়াজাত করা শিল্প, এটার ওপর আমাদের গুরুত্ব দিতে হবে।’

এ সময় জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান শিল্পকারখানাগুলো জাতীয়করণ করেছেন বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘স্বাধীনতার পর এই শিল্পকারখানাগুলো জাতীয়করণ করা হয়। একজন মা যেমন তার রুগ্ন সন্তানকে পরিচর্যা করে সুস্থ করে তোলেন, জাতীর পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কিন্তু সেই সময় পরিত্যক্ত শিল্পকারখানাগুলো জাতীয়করণ করে সেখানে যেমন শ্রমিকদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করে দেন, শিল্পায়নটা যেন অব্যাহত থাকে তারও ব্যবস্থা তিনি নিয়েছিলেন।’

‘তবে যারা পাকিস্তানের নাগরিকত্ব না নিয়ে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব নিয়েছিল, তাদের শিল্পকারখানাগুলো আবার বেসরকারি খাতে ফিরে দেওয়ার পদক্ষেপও তিনি নেওয়া শুরু করেছিলেন। এভাবেই শিল্পায়নটা যেন বাংলাদেশে  হয়, তার দিকে তিনি বিশেষ দৃষ্টি দিয়েছিলেন’, বলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

আন্দোলন বিস্ফোরিত হলে ভেসে যাবে সরকার: রব

‘আন্দোলন কখনও ব্যর্থ হয় না’ দাবি করে জেএসডির সভাপতি আ স ম আব্দুর রব সরকারের উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘আন্দোলন জমা থাকে, আন্দোলন কখনও হারিয়ে যায় না। আন্দোলন যখন বিস্ফোরিত হবে সেদিন ভেসে যাবেন।’

রবিবার (২৪ মার্চ) বিকেলে রাজধানীর কাকরাইল ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশনে বিএনপির সাবেক মহাসচিব কে এম ওবায়দুর রহমান এর ১২তম মৃতবার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে রব বলেন, ‘সময় আসছে, সুযোগ আসবে, সংগঠিত থাকুন, অপেক্ষা করুন। শুধু রাজনৈতিক দলের আন্দোলনে স্বৈরাচারকে উৎখাত করা যায় না। সমাজের রাষ্ট্রের সকল জনগণের ঐক্যবদ্ধ শক্তির মাধ্যমে স্বৈরাচারকে উৎখাত করতে হয়।’

সরকারের উদ্দেশ্যে জেএসডির সভাপতি আরও বলেন, ‘মনে করছেন এভাবে চিরস্থায়ী বন্দোবস্তোর মাধ্যমে টিকে থাকবেন? এটা অসম্ভব। হিটলার নাই, মুসোলিনি নাই, ফেরাউন নাই, সাদ্দাম হোসেন নাই। আপনারাও থাকবেন না। ২০ ফেব্রুয়ারি শেখ মুজিবুর রহমানকে সকল মামলা প্রত্যাহার করে জনগণ যেভাবে নিয়ে এসেছিলো খালেদা জিয়াকেও সেই একইভাবে কারাগার থেকে মুক্ত করবে জনগণ।’

তিনি বলেন, ‘আগামীকাল যে শিশুর জন্ম হবে তার মাথায় থাকবে ৫০ হাজার কোটি টাকার ঋণ। এই হলো উন্নয়ন। ১৬ কোটি মানুষকে বিক্রি করে ক্ষমতায় থাকা, তার উপর নাগিন নৃত্য করা বন্ধ করতে হবে।’

ডাকসুর প্রসঙ্গ টেনে তিনি বলেন, ‘গত 8 বছরে ছাত্রদের নিশ্চিহ্ন করে দেয়া হয়েছে।’

স্মরণ সভায় নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ‘ঐক্যবদ্ধ থেকে লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। এর কোনও বিকল্প নেই। ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের নামে এত বড় ডাকাতি পুরো রাষ্ট্র মিলে করতে পারে? এরপর সাম্প্রতিক ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ও উপজেলা নির্বাচনে কোনও জায়গাতেই মানুষ ভোট দিতে যায়নি।’

ডাকসু নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘ডাকসু নির্বাচন কি কোনও নির্বাচন হয়েছে? পুলিশ হয়তো সিল মারেনি, বিজিবি হয়তো সিল মারেনি, কিন্তু সিল মারা তো হয়েছে। চুরি করা ব্যালট বাক্স পাওয়া গেছে, সিল মারা ব্যালট বাক্সতো পাওয়া গেছে। তারপর সেই ডাকসুকে আবার প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এর মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসকে কলঙ্কিত করে ডাকসুর ইতিহাসকে কলঙ্কিত করা হয়েছে।’

এ প্রসঙ্গে মান্না বলেন, ‘এখন নতুন একটা স্তম্ভ বানানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। মানুষ যেন কথা বলতে না পারে এরকম অবস্থা তৈরি করে রেখেছে এই জুলুমের সরকার। মানুষের মধ্যে এখন এক ধরনের হতাশা। মানুষ আমাদেরকে জিজ্ঞেস করে- ‘ভাই দেশের অবস্থা কী হবে? পাঁচ বছরও কি এমনই থাকবে’?’

টি এম গিয়াসউদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে স্মরণসভায় আরও বক্তব্য দেন- বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ভাইস চেয়ারম্যান শাহ মোয়াজ্জেম হোসেন, নিতাই রায়, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খাইরুল কবির খোকন ও সাংগঠনিক সম্পাদক শ্যামা ওবায়েদ প্রমুখ।

কত শতাংশ ভোট পড়েছে তা ব্যাপার না : ইসি সচিব

নির্বাচনে কত শতাংশ ভোট পড়েছে তা কোন ব্যাপার না। তা নিয়ে আমাদের মাথা ব্যথা নেই। বিষয়টি হলো শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন হয়েছে। বললেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ।

আজ রোববার বিকেল সাড়ে ৫টায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

হেলালুদ্দিন আহমদ বলেন, উপজেলা নির্বাচনে প্রথম ধাপে ৩৪ শতাংশ, দ্বিতীয় ধাপে ৪১ শতাংশ পড়েছে। তৃতীয় ধাপে আমার আশা করছি ৪৫ শতাংশ হবে ভোট পড়বে।

সচিব সাংবাদিকেদের বলেন, একটি রাজনৈতিক দল ভোটে আসেনি। অপরদিকে ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে না আসার জন্য তাদের প্রচার আছে। এসব আপনাদের খেয়াল রাখতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের মূল বিষয় হচ্ছে নির্বাচন শান্তিপূর্ণভাবে হচ্ছে কি না সেটা দেখা। পঞ্চম উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপের ভোট মোটামুটি শান্তিপূর্ণভাবে হয়েছে।

জনপ্রিয়

গরম খবর