নৌকা পেয়ে উচ্ছ্বসিত জাহাঙ্গীর, ক্ষোভে আজমত উল্লা’র সমর্থকরা

0
16

নৌকা পেয়ে উচ্ছ্বসিত জাহাঙ্গীর, ক্ষোভে আজমত উল্লা’র সমর্থকরা

গাজীপুরে আওয়ামী লীগের দলীয় প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম চূড়ান্ত হওয়ার পর উচ্ছ্বাসের সঙ্গে নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন। তার সমর্থক নেতাকর্মীরা নগরের জয়দেবপুর, বোর্ডবাজারসহ বিভিন্ন এলাকায় আনন্দ মিছিল করেছে। দলের অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী অ্যাডভোকেট আজমত উল্লা খানের সমর্থকরা নানাভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

এদিকে, বিএনপির মেয়র প্রার্থীও চূড়ান্ত করা হয়েছে। বর্তমান মেয়র অধ্যাপক আবদুল মান্নান শারীরিকভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ায় সাবেক সংসদ সদস্য হাসান উদ্দিন সরকারকে ধানের শীষের মনোনয়ন দিয়েছে দলটি। ওদিকে বিভিন্ন ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর প্রার্থীরা রিটার্নিং কার্যালয়ে থেকে মনোনয়নপত্র উত্তোলন করছেন। আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম মনোনয়নপত্র উত্তোলন করবেন আজ। গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সকাল থেকেই তার বাসভবনে নেতাকর্মীদের সঙ্গে মতবিনিময় করছেন। নেতাকর্মীরা ও লোকজন তাকে ফুল, মিষ্টি দিয়ে অভিন্দন জানাচ্ছেন। এ সময় তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে মনোনয়ন দেয়ায় তাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। এ ছাড়া মেয়র পদে অন্য যারা প্রার্থী ছিল তাদের নিয়ে একসঙ্গে আমি কাজ করবো। গাজীপুর সিটির সব ভোটার, তরুণসহ সবাইকে নিয়ে গাজীপুরকে একটি আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তোলা হবে। এর জন্য দলের জ্যেষ্ঠ নেতা ও কর্মীদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছি।

মঙ্গলবার রিটার্নিং অফিসারের কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র উত্তোলন করা হবে। জাহাঙ্গীর আলম দলীয় মনোনয়ন পাওয়ায় সকাল থেকে নেতাকর্মীরা তার বাসায় জড়ো হন এবং মিছিল স্লোগান দেন। এ সময় তারা দলীয়ভাবে জাহাঙ্গীর আলমকে বেছে নেয়ায় প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে নৌকার জয়ের ব্যাপারে আশা প্রকাশ করেন। অপর দিকে মনোনয়ন বঞ্চিত অপর মেয়র প্রার্থী আজমত উল্লার বাসায়ও লোকজন ভিড় করছেন। এ সময় সেখানে তারা বিভিন্নভাবে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। অন্যদিকে নির্বাচনী মাঠে সেভাবে নামেননি বিএনপির কর্মী সমর্থকরা। তবে, মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার বলছেন, জাতীয়তাবাদী ও ইসলামী শক্তির সমন্বয়ে ভোটের মাঠে আওয়ামী লীগের দুঃশাসনের জবাব দেয়ার জন্য প্রস্তুত রয়েছে জনগণ। টাকার কাছে কেউ বিক্রি হবে না। সিটির ৫৭টি ওয়ার্ডে ভোটার সংখ্যা ১১ লাখ ১৬ হাজার ৩৪৮ জন। আগামী ১৫ই মে ভোটাররা তাদের ভোট দিয়ে পছন্দের প্রার্থীকে নগর পিতা বানাবেন।