চট্টগ্রামে যৌথ বাহিনী বিএনপি ও যুবদলের দুই আহবায়কসহ ৬ জনকে আটক করেছে। রোববার রাতে নগরীর ইপিজেড থানা ও জেলার মীরসরাই উপজেলা থেকে পৃথক অভিযানে তাদের আটক করা হয়েছে।

আটকেরা হলেন- চট্টগ্রাম মহানগর যুবদল নেতা ও ইপিজেড থানা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মোজাদ্দেদ বারেক, জামায়াত নেতা মাওলানা বখতেয়ার উদ্দিন মিন্টু, সাবেক শিবির নেতা এ্যাডভোকেট সাহেদ হোসেন, ছাত্রদল নেতা ফরহাদ ও মীরসরাই উপজেলা যুবদলের আহবায়ক শাহীনুল ইসলাম স্বপন। পতেঙ্গা থেকে আটক এক ছাত্রদল নেতার নাম জানা যায়নি।

ইপিজেড থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাহমুদ জানান, সন্ত্রাস বিরোধী অভিযানের অংশ হিসেবে সন্ধ্যা ৬টা থেকে নগরীর ইপিজেড থানায় সাড়াঁশি অভিযান শুরু করেছে যৌথবাহিনী। অভিযানের শুরুতেই ইপিজেড থানা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মোজাদ্দের তারেককে নেভীকে আটক করেছে যৌথবাহিনী। এর পরপরই বিএনপি জামায়াতের আরও ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা গেছে, অভিযানে যৌথবাহিনীর সদস্যরা পতেঙ্গা বিএনপি নেতা মো. ডময়া ভোলা, সাংগঠিক সম্পাদক মাহবুব এলাহি, ৪০ নং ওয়ার্ড বিএনপি নেতা হারুন কোম্পানি এবং সাবেক কাউন্সিলর ও বিএনপি নেতা সরফরাজ কাদের রাসেলের বাড়িতে তল্লাশি করে। তাদের বিরুদ্ধে ভাঙচুর ও পরিবারের সদস্যদের সাথে দুঃব্যবহারের অভিযোগ করেন স্থানীয় বিএনপি নেতারা।

এদিকে একই সময়ে মিরসরাই উপজেলা যুবদলের আহবায়ক শাহীনুল ইসলাম স্বপনকে আটক করেছে পুলিশ।

জোরারগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সাত্তার স্বপনকে আটকের বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, সন্ধ্যায় সাড়ে ৬টার সময় উপজেলার ওছমানপুর ইউনিয়নের আজমপুর বাজার থেকে তাকে আটক করা হয়েছে। স্বপন ওছমানপুর ইউনিয়নের পাতাকোট গ্রামের দুদু মিয়ার পুত্র। তার বিরুদ্ধে ভাংচুর ও দ্রুত বিচার আইনে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে।সৌজন্যেঃ দিনকাল

 
প্রকাশক: সালেহ মোহাম্মদ রশীদ অলক
সম্পাদকঃ মাহসাব হোসাইন রনি
বার্তাকক্ষঃ ০১৭১১-৪৬০৬০১ | ই-মেইলঃ news.politicsnews24@gmail.com
 
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি