স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে সাংবাদিকদের প্রশ্ন বদির বিরুদ্ধে কেন ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে না?

30

সারাদেশে মাদকবিরোধী অভিযান চলছে। এরই মধ্যে সচেতন মহলে সবার মুখে মাদক সম্রাটের নাম। ঝড় বইছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এখন প্রতিদিনই দেশের বিভিন্ন জেলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে মাদক ব্যবসায়ীদের নিহতের খবর আসছে। তবে মাদক ব্যবসায় জড়িত থাকার অভিযোগ থাকার পরও কক্সবাজার-৪ টেকনাফ-উখিয়া আসনের এমপি আবদুর রহমান বদির বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা কেন নেওয়া হচ্ছে না-এই প্রশ্নের জবাবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘সংসদ সদস্য বদির বিরুদ্ধে অভিযোগ আমাদের কাছে আছে। আমরা সেই অভিযোগগুলো সম্পর্কে খোঁজখবর নিচ্ছি। বদিসহ অন্য মাদক ব্যবসায়ীদের বিষয়ে আপনাদের কাছেও কোনও তথ্য থাকলে আমাদের দিন। বদির বিরুদ্ধে অভিযোগ আছে, তথ্য-প্রমাণ নাই।’

মঙ্গলবার (২২ মে) সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে নিজের দফতরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেন, ‘দেশে কোনও ক্রসফায়ার হচ্ছে না, যা হচ্ছে বন্দুকযুদ্ধ।’ মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নিয়ে পুলিশ সামনের দিকে এগোচ্ছে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, এর আগে সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, র‍্যাব, পুলিশ ও মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের মাদক পাচারকারীদের তালিকায় এমপি বদি সামনের সারিতে আছেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এ যাবত দুই হাজারের বেশি মাদক ব্যবসায়ীকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে বিচার করে জেল দেওয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ সংসদ সদস্য, সরকারি কর্মকর্তা, পুলিশ, র‍্যাব, সাংবাদিক যারাই মাদকের ব্যবসার সঙ্গে যুক্ত থাকবে তাদের ছাড় নয়।’

প্রসঙ্গত, সারাদেশে মাদকবিরোধী অভিযানে গত চারদিনে ২৯ ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। পুলিশ ও র‌্যাব সবগুলো ঘটনাকেই ‘বন্দুকযুদ্ধ’ হিসেবে দাবি করেছে।