বিএনপি নির্বাচনে আসবে কিনা মাথা ব্যাথা নেই : কাদের

27

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে এক এগারোর কুশিলবদের নিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছে। তাদের কোনো ষড়যন্ত্রেই কাজ হবে না। সব ষড়যন্ত্র দেশের জনগণ রুখে দেবে।’

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে যৌথ সভা শেষে তিনি একথা বলেন।

কাদের বলেন, আগামী নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিএনপি কোথায় কী করছে, সেই তথ্য সরকারের কাছে আছে। দেশের জনগণের প্রতি আস্থা না থাকায় বিএনপির নেতারা বিদেশিদের কাছে ধর্ণা দিচ্ছে। বিদেশ গিয়ে ও কূটনৈতিকদের কাছে নালিশ করছে দলটি।

‘বিএনপি নির্বাচনে না আসলে সরকার কি করবে?’ – এমন প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘আওয়ামী লীগ তাদের নির্বাচনে আসার পথে বাঁধা নয়। কোন গণতান্ত্রিক দেশে বিরোধী দলকে সরকার নির্বাচনে ডেকে আনে? তারা নিজেদের গণতান্ত্রিক দল দাবি করে আর নির্বাচনে আসবে না, এটা তাহলে কি?’ আগামী নির্বাচনে বিএনপি অংশ নিবে কিনা এটা নিয়ে আওয়ামী লীগের মাথাব্যাথা নেই বলেও জানান তিনি।

খালেদা জিয়ার সিএমএইচ হাসপাতালে ভর্তি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা নির্বাচনে সেনাবাহিনী চায়। কিন্তু সেনাবাহিনীর হাসপাতালে তাদের অনিহা। সিএমএইচ হাসপাতালের চেয়ে ভাল হাসপাতাল আছে বলে আমার জানা নেই।

তার আগে ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে আরও উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম সাধাররণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, ডা. দিপু মনি, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, একেএম এনামুল হক শামীম, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, ত্রাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, কৃষি সম্পাদক ফরিদুরনাহার লাইলী, বন ও পরিবেশ সম্পদক দেলোয়ার হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সম্পদক আব্দুস সবুর, উপ দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য এস এম কামাল হোসেন প্রমুখসহ সহযোগী ও ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের নেতারা।