সরকারকে অনেক বেশি ড্যামারেজ দিতে হবে : রিজভী

36

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ অবৈধ ক্ষমতার শক্তিতে এখন দেশে দণ্ডমুণ্ডের কর্তা সেজে বসেছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। বলেছেন, ‘বাংলাদেশে চলছে এক আজব শাসন। এখানে বিরোধী দল, বিরোধী মতের বিশ্বাসী মানুষেরা দ্বিতীয় শ্রেণির নাগরিক। তারা (আওয়ামী লীগ) এখন দেশে দণ্ডমুণ্ডের কর্তা সেজে বসে আছে।’

লেট ক্লিয়ারিংয়ের জন্য সরকারকে অনেক বেশি ড্যামারেজ দিতে হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহল কবির রিজভী আহমেদ। তিনি বলেছেন, ‘আমি সরকারকে বলতে চাই, এই মুহূর্তে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিয়ে ইউনাইটেড হাসপাতালে তার যথাযথ চিকিৎসা দিতে হবে। অবাধ, সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য তত্ত্বাবধায়ক সরকারের কাছে ক্ষমতা হস্তান্তর করুন। নইলে লেট ক্লিয়ারিংয়ের জন্য অনেক বেশি ড্যামারেজ দিতে হবে।’

মঙ্গলবার (১৯ জুন) বেলা ১২টার দিকে নয়াপল্টন বিএনপি’র কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। এসময় খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে আগামী ২১ জুন সারাদেশে বিক্ষোভ সমাবেশে করার ঘোষণা দেন তিনি।

খালেদা জিয়ার ওপর নানা কায়দায় অমানবিক নির্যাতন চলছে অভিযোগ করেছেন রিজভী। তিনি বলেন, ‘তার যাতে যথাযথ চিকিৎসা না হয় সেজন্য সরকার এমন কোনও ফন্দি নেই যে করেনি। চিকিৎসা বিলম্বিত করতে মন্ত্রীরা নানা কাহিনি শোনাচ্ছেন। এখন শুধু কারা কর্তৃপক্ষই নয়, এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে সরকারের বাণিজ্যমন্ত্রী,সেতুমন্ত্রী, আইনমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। তারা এমন কথা বলছেন, যেন খালেদা জিয়ার বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা হলে তাতে মহাভারত অশুদ্ধ হয়ে যাবে।’

সংবাদ সম্মেলনে সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আহমেদ আজম খান, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, কেন্দ্রীয় নেতা মীর সরফত আলী সপু, তাইফুল ইসলাম টিপু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।