ঢাকা উত্তর বিএনপি সংকট সমাধানে সময় নিয়েছেন মির্জা ফখরুল

33

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির ঘোষিত থানা ও ওয়ার্ড কমিটির সংকট নিরসনে আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত সময় নিয়েছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শনিবার সংগঠনের বিদ্রোহী নেতারা তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করলে তিনি সংকট সমাধানের আশ্বাস দিয়ে সময় নেন।

এ সময় মহাসচিব নেতাদের জানান, রোববার দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলার শুনানি রয়েছে। সোম ও মঙ্গলবার গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত থাকবেন। এই সময়ের মধ্যেই তিনি দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করে বিতর্কিত কমিটি গঠনে সৃষ্ট জটিলতা নিরসনে উদ্যোগ নেবেন। ৩ জুন ঢাকা মহানগর উত্তরের ২৫টি থানা ও ৫৮টি ওয়ার্ডের কমিটি ঘোষণা করা হয়।

মহানগর উত্তর বিএনপির সহসভাপতি ফেরদৌসী আহমেদ মিষ্টি জানান, পদবঞ্চিত নেতাকর্মী আর সংগঠনের পদধারী নেতারা মহাসচিবের উত্তরার বাসভবনে দেখা করেন। এ সময় তিনি তাদের কথা শোনেন ও ধৈর্য ধরার আহ্বান জানান। যুগ্ম সম্পাদক শামীম পারভেজ বলেন, মহানগর উত্তর বিএনপির সভাপতি এমএ কাইয়ুম ও সাধারণ সম্পাদক আহসানউল্লাহ হাসান স্বেচ্ছাচারিতার মাধ্যমে থানা ও ওয়ার্ড কমিটি গঠন করেছেন। এসব পকেট কমিটিতে মাদক ব্যবসায়ী, খুনি, দলিল লেখকসহ বিতর্কিতদের স্থান দেওয়া হয়েছে। তারা বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে যোগ্য ও ত্যাগীদের দিয়ে কমিটি করার দাবি জানিয়েছেন। মহাসচিব তাদের দাবির সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন।

এর আগে বুধবার মহানগর উত্তরের নেতারা মহাসচিবের সঙ্গে দেখা করে ঘোষিত কমিটির বিতর্কিত নেতাদের এবং বাদ পড়া যোগ্য ও ত্যাগীদের দুটি তালিকা জমা দেন। এর মধ্যে ২৫টি থানায় ১০৭ জন বাদ পড়া নেতার নাম রয়েছে। তারা এই তালিকা দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান, ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাজাহানের কাছেও জমা দেন। রোববার দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন ছাড়াও আরও কয়েকজন নেতার কাছে ওই তালিকা জমা দেওয়া হবে বলে জানা গেছে।