‘ঢাবিতে কী হইছে জানি না, লীগের আপুরা ডাকছে, তাই আসছি’

28

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ‘অস্থিতিশীল’ করার প্রতিবাদ জানিয়ে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থী’দের ব্যানারে এই মানববন্ধনে বদরুন্নেসা কলেজ, ইডেন কলেজ ও গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের আধিক্য দেখা গেছে।

ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য তানভীর হাসান সৈকত এ মানববন্ধনের নেতৃত্ব দেন।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সন্ত্রাসবিরোধী রাজু স্মারক ভাস্কর্যে এই মানববন্ধন শুরু হয়। এতে অংশ নেয়া বেশিরভাগই গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ ও বেগম বদরুন্নেসা সরকারি কলেজের ছাত্রী ছিলেন।

বক্তারা অভিযোগ করে বলেন, কোটা সংস্কারের নামে কিছু শিক্ষার্থী অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। তাদের আন্দোলনে এখন সাধারণ শিক্ষার্থী নেই। এ জন্য তারা নিজেদের মধ্যে মারামারি করছে। তাদের প্রতিরোধ করতে হবে।

ছাত্রলীগ নেতা তানভীর হাসান সৈকত বলেন, নিজেদের দুগ্রুপে সংঘর্ষ করেই কোটা আন্দোলনকারীরা আহত হয়েছে। ছাত্রলীগ ওই সব হামলা চালায়নি। ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ছাত্রলীগের ওপর দোষ চাপানো হচ্ছে।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করার বিষয়ে সোহেলী রহমান ছাত্রীকে পরিচয় জিজ্ঞেস করলে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রোকেয়া হলের আবাসিক শিক্ষার্থী বলে পরিচয় দেন। কিন্তু হলের কত নম্বর কক্ষে থাকেন এমন প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেননি।

এরপর তিনি নিজেকে ইডেন মহিলা কলেজের ছাত্রী বলে পরিচয় দেন। কেন এসেছেন জিজ্ঞেস করতেই বললেন, কী হইছে জানি না। ছাত্রলীগের আপুরা ডাকছে, তাই আসছি।

ইডেনের কোন বিভাগে পড়েন জিজ্ঞেস করলে, পাশে থাকা আরেক ছাত্রী তাকে সরিয়ে নেন দ্রুত।