হত্যার উদ্দেশ্যেই মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলা : ফখরুল

21

হত্যার উদ্দেশ্যেই দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলা চালানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন-বিএফইউজে এবং ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজে আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশে তিনি এ অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, এ ঘটনার সময় আমি একটা সভায় ছিলাম। আমি তখনই জানতে পারলাম হামলার ঘটনা। কুষ্টিয়ায় পুলিশের দায়িত্বে যিনি আছেন তিনি আওয়ামী লীগের চেয়েও একজন ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসী।

ফখরুল আলমগীর বলেন, হামলার আগে আমি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ফোন করি। তিনি আমাকে আশ্বস্ত করে বলেন, আমি দেখছি, ব্যবস্থা করছি তার সেইফলি (নিরাপদে) বের হয়ে যাওয়ার। তারপরও আমাদের দুর্ভাগ্য, পুলিশের উপস্থিতিতে মাহমুদুর রহমানকে যেভাবে হত্যার উদ্দেশ্যে আক্রমণ করা হয়েছে, আহত করা হয়েছে এটা ইদানিং কালের নজিরবিহীন ঘটনা।

কয়েক বছর ধরে আওয়ামী লীগ মুক্ত চিন্তার ওপর আঘাত করে চলেছে। গণমাধ্যমকর্মীদের আক্রমণ করছে, ধ্বংস করে দিতে চাচ্ছে। তারা মুক্ত গণমাধ্যম ধ্বংস করতে চায়।

এসময় অবিলম্বে মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনার দাবিও জানান মির্জা ফখরুল।

এসময় বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, এ জেড এম জাহিদ হোসেন, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ওবায়দুল ইসলাম, বিএফইউজের সভাপতি সাংবাদিক নেতা রুহুল আমিন গাজী, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন-ডিইউজে সভাপতি কাদের গনি চৌধুরীসহ গণমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

রোববার মানহানির মামলায় জামিন পেয়ে বের হবার পর কুষ্টিয়া আদালত প্রাঙ্গণে আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের উপর অতর্কিত হামলা চালায় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

তাকে বহনকারী গাড়ির গ্লাস ভেঙে লাঠি ও ইটপাটকেলের আঘাতে আহত হন মাহমুদুর রহমান। পরে বিকেল ৫টার দিকে আদালত প্রাঙ্গণ থেকে অ্যাম্বুলেন্সে করে যশোর বিমানবন্দর থেকে বিমানযোগে মাহমুদুর রহমানকে ঢাকায় নিয়ে আসা হয়। তিনি এখন ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।