কয়েক বছর পর ঢাকায় আর বসবাসের প্রয়োজন হবে না: প্রধানমন্ত্রী

27

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন- ‘আর কয়েক বছর পর মানুষের ঢাকায় আর বসবাসের প্রয়োজন হবে না। মানুষ বাইরে থেকে এসে ঢাকায় কাজ করবে, আবার চলে যাবে। সেই পরিকল্পনা নিয়েই আমরা কাজ করে যাচ্ছি।’

শনিবার (২৮ জুলাই) বাড্ডা নর্থ ইউলুপ উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরও বলেন- ‘মাত্র এক ঘণ্টায় ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম পৌঁছানো যাবে ট্রেনে, এমন দ্রুতগামী বা বুলেট ট্রেন চালু করবো। এই ট্রেন ঢাকা টু চট্টগ্রাম, ঢাকা টু সিলেট, ঢাকা টু রাজশাহী, ঢাকা টু দিনাজপুর, ঢাকা টু বরিশাল, এমনকি ঢাকা টু কলকাতাও চালু করবো।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঢাকা শহরে মানুষের বসবাস বাড়ছে। ঢাকায় অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মানুষের আগমনও বাড়ছে। ঢাকায় রিং রোড করার বাইরে রাজধানীজুড়ে ছোট ছোট শহর গড়ে তোলা হবে। এই শহরগুলো হবে বহুতল বিল্ডিং দিয়ে।

রাজধানীর সঙ্গে আশপাশের শহরের যোগাযোগ সহজ করার জন্য সরকার নানা প্রকল্প হাতে নিয়েছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, গাজীপুর, উত্তরা থেকে ২০ কিলোমিটার পথ ৩৮ মিনিটে পেরিয়ে যাত্রীদের মতিঝিলে পৌঁছে দেয়ার লক্ষ্যে মেট্রোরেল চালু করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, এতে সাধারণ মানুষের জন্য ঢাকার বিভিন্ন যাতায়াত আরও সহজ হবে। গাজীপুর থেকে শাহজালাল বিমানবন্দর পর্যন্ত বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) রুট চালু হলে টঙ্গী ও উত্তরার সঙ্গে ঢাকা মহানগরীর যাতায়াত সহজতর হবে।

অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্তমন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন।

এর আগে হাতিরঝিল সমন্বিত উন্নয়ন প্রকল্পের বাড্ডা প্রান্তের ইউ আকৃতির গাড়ি পারাপার সেতু (ইউলুপ) উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। উদ্বোধনের পর গাড়িতে স্থাপনাটি ঘুরে দেখেন প্রধানমন্ত্রী। এরপরই এটি যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়ার প্রস্তুতি শুরু হয়।

উল্লেখ্য, ইউলুপটির দৈর্ঘ্য ৪৫০ ও প্রস্থ ১০ মিটার। এ জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৪০ কোটি টাকা। প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজ করে সেনাবাহিনীর ১৭ প্রকৌশল নির্মাণ ব্যাটালিয়ন (ইসিবি)। নির্মাণকাজের দায়িত্বে ছিল স্পেক্ট্রা ইঞ্জিনিয়ার্স লিমিটেড।