‘বিএনপির রাজনীতির উদ্দেশ্য হচ্ছে সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের রক্ষা করা’

16

বিএনপি সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের রক্ষা করতে রাজনীতি করে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।  রোববার(২৬ আগস্ট) তার দপ্তরে সাংবাদিকদের সাথে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়কালে তিনি একথা বলেন। এসময় মন্ত্রী দলটির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়াকে জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের মাতা বলে অভিহিত করেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন,  বিএনপির রাজনীতির উদ্দেশ্য হচ্ছে সন্ত্রাসী ও জঙ্গিদের রক্ষা করা।

তিনি বলেন, খালেদা জিয়া গণতন্ত্রের মাতা নন, তিনি ফেরেশতাও নন। তিনি জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসের মাতা। বন্দি থাকা অবস্থায় তিনি আন্দোলনের যে হুমকি দিয়েছেন সে হুমকিতে জনগণ বিচলিত হবে না।

তথ্যমন্ত্রী আরও বলেন, বাংলাদেশে নির্বাচনের সময় আসলে নানা ধরনের আলোচনা-সমালোচনা হয়ে থাকে। বড় বড় বিচারকাজ আদালতে চলাকালীন সময়ে কিছু চক্র হইচই করে।

এসময় উদাহরণ টেনে হাসানুল হক ইনু বলেন, একাত্তরের ঘাতক যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের সময় এরকম হইচই হয়েছিল। এমনকি বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচারের সময়ও একটি চক্র হইচই করেছে। এই চক্রটি হচ্ছে বিএনপি। তারা তাদের জামায়াত-শিবির সন্ত্রাসীদের রক্ষা করতে ফেরেশতার মতো তকমা দিয়ে থাকেন ও নানান বুলি ছুড়েন।

তিনি বলেন, ২১ শে আগস্টের বিচারকাজ চলাকালে আদালতে গিয়ে হট্টগোল করা আদালত অবমাননার সামিল। যারা হট্টগোল করেছে তাদের আইনের আওতায় আনার জন্য তিনি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, আইন আইনের গতিতে চলবে। আইনের গতিতেই সন্ত্রাসী ও খুনিদের বিচার হবে। এতে সরকারের কোন হস্তক্ষেপ থাকবে না। এছাড়া, নির্বাচনও নিয়মতান্ত্রিকভাবে অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচন কমিশন সংস্কার বিষয়ে ড. কামালের দাবি প্রসঙ্গে হাসানুল হক ইনু বলেন, এসব বক্তব্যের উত্তর নির্বাচন কমিশন দেবে।

এবার ঈদে দুই-একটি দুর্ঘটনা ছাড়া তেমন কোন অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি বলে মন্ত্রী সাংবাদিকদের জানান। তিনি বলেন, এবারের ঈদে গ্রাম থেকে শহরে ও শহর থেকে গ্রামে মানুষ নির্বিঘ্নে যাতায়াত করেছে। ঈদের জামাত নাশকতা বা জঙ্গিহামলা ছাড়া সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হয়েছে। এতে প্রমাণ হয় হাসিনা সরকার ঈদে মুসল্লিদের নিরাপত্তা দিতে পেরেছে।