মাঠে নামছে আইনজীবীরাও, অক্টোবরে মহাসমাবেশ

গণতন্ত্র পুন:প্রতিষ্ঠা, নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারেরর অধীনে নির্বাচন ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াসহ সকল রাজবন্দিদের মুক্তির দাবিতে মাঠে নামছে সরকার বিরোধী আইনজীবীরা।

তিন দফা এই দাবিতে আগামী অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে মহাসমাবেশেরও ডাক দিয়েছে তারা। এজন্য  ‘জাতীয় আইনজীবী ঐক্যপরিষদ’ নামের ঐক্য প্রতিষ্ঠা হতে যাচ্ছে।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি ভবনের সম্মেলন কক্ষে সরকারবিরোধী আইনজীবীদের একটি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ঐক্যপ্রক্রিয়া নিয়ে আলোচনা হয়। ঘণ্টাব্যাপী আলোচনায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সভায় আইনজীবীরা বলেন, ‘দেশে গণতন্ত্র ও আইনের শাসন নেই। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা আজ ভূলুণ্ঠিত। এসব দাবিতে ‘জাতীয় ঐক্য’ গঠন করা হয়েছে, সেই ঐক্যকে আরো শক্তিশালী করার লক্ষ্যে আইনজীবীদের ঐক্যের কোনো বিকল্প নেই।’

সিনিয়র আইনজীবীদের কমিটি ছাড়াও আরেকটি কমিটি থাকবে। আন্দোলনকে লক্ষ্যে পৌঁছে দেয়ার জন্য উভয় কমিটি একসঙ্গে কাজ করবে। শিগগিরই একটি আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হবে এবং আহ্বায়ক হিসেবে সুপ্রিম কোর্টের তিনজন সিনিয়র আইনজীবীর নাম প্রস্তাব করা হয়েছে।

বৈঠক সূত্রে জানা গেছে, সভায় ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ আইনজীবীদের জাতীয় ঐক্য নিয়ে একটি নাম দেয়ার প্রস্তাব করেন। একই সঙ্গে অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে আইনজীবীদের মহাসমাবেশ করার পক্ষে মত দেন। এ ছাড়া প্রতিটি বিভাগে আইনজীবীদের কমিটি গঠনের সুপারিশ করেন মওদুদ আহমদ।

সভাশেষে ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, রাজনীতিবিদদের পাশাপাশি দেশের সকল আইনজীবীদের মধ্যেও জাতীয় ঐক্যের প্রয়োজন রয়েছে। এ বিষয়ে শক্তিশালী একটি ঐক্যপ্রক্রিয়ার কাজ চলছে। আমরা চাই দেশে আইনের শাসন ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা হোক।

সভায় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন, সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী প্রমুখ।