চাকরি বাজার এবং বাস্তবতাঃ সাম্প্রতিক অবস্থা

156

চাকরি বাজার এবং বাস্তবতাঃ সাম্প্রতিক অবস্থা

চাকরি বাজার এর প্রকৃতি খুব দ্রুত পরিবর্তন হচ্ছে। নতুন নতুন চাকরির ক্ষেত্র তৈরি হচ্ছে।

সেবা খাতের চাকরির বাজার খুব দ্রুত বাড়ছে (যেমন: টেলিকমিউনিকেশন, ব্যাংকিং, স্বাস্থ্য প্রভৃতি) । সেই সাথে বেতনও খুব দ্রুত বাড়ছে।

প্রযুক্তি এবং যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতির ফলে কর্মস্থলের অবস্থানগত (local presence) গুরুত্ব হ্রাস পাচ্ছে।

স্থায়ী চাকরির (Permanent Job) সংখ্যা কমে যাচ্ছে . চাকরিদাতা এবং চাকরিপ্রার্থী উভয়ের সামনেই এখন অনেক পথ খোলা।

বৃহৎ প্রতিষ্ঠানের তুলনায় ক্ষুদ্র ও মাঝারী প্রতিষ্ঠানে (SME) চাকরির সুযোগ বেশী সৃষ্টি হয়েছে।

চাকরিজীবিরা এখন এক খাত (Industry / Sector) থেকে অন্য খাতে চাকরির পরিবর্তন করছে।

চাকরি দাতারা এখন চাকরিপ্রার্থী কতটুকু মূল্যের (Value) সেবা প্রদানে সক্ষম তার উপর ভিত্তি করে তার বেতন নির্ধারন করছে।

বর্তমানে চাকরির বাজারে ডিগ্রির চেয়ে দক্ষতাকে বেশী প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে

ক্রেতা সন্তুষ্টিকে প্রাধান্য দেয়া হচ্ছে, কারণ ক্রমবর্ধমান প্রতিযোগিতার ফলে ক্রেতাদের সামনে এখন বাছাই করার অনেক সুযোগ রয়েছে।

নতুন নতুন যে দক্ষতাগুলো প্রয়োজন:

যোগাযোগের দক্ষতা ( Communication Skill )

ভাষাগত দক্ষতা ( Language Skill)

তথ্যপ্রযুক্তিতে দক্ষতা ( IT / Computer Skill)

পারষ্পরিক সম্পর্ক রক্ষার দক্ষতা (Interpersonal Skill)

চাকরিক্ষেত্রে পুরষ্কৃত হওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় গুণাবলী ও দক্ষতা:

পেশাদারিত্ব (Professionalism)

নতুন নতুন ব্যবসায়ের ক্ষেত্র উদ্ভাবন ( New Business Development & Innovation Skills )

উত্সাহ প্রদান দক্ষতা ( Motivation Skills )

নিজের কাজের উপর সুষ্পষ্ট জ্ঞান (In-depth knowledge on own workarea )

নিজের কাজের দক্ষতা উন্নয়নের আগ্রহ ( Eagerness for self development )

বাস্তবতা

দেশে হাজার হাজার মানুষ বেকার থাকা সত্বেও চাকরিদাতারা দক্ষ কর্মী পাচ্ছেন না।

সুযোগ

চাকরি পাবার আগে দক্ষতা বাড়ান ।