দশম সংসদ নির্বাচনের মত আগামী নির্বাচনে সরকারকে আর একতরফা খেলতে না দেয়ার ঘোষণা দিয়ে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আসুন নির্বাচনকালীন সহায়ক সরকার নিয়ে আলোচনা করি, সংলাপ করি। কিন্তু আপনারা সেটা করবেন না। আলোচনায় বসলে আপনাদের আসল কথা ফাঁস হয়ে যাবে। আপনারা জয়ী হতে পারবেন না। আপনারা চান নিজেরাই রেফারি থাকবেন, লাইন্সম্যান থাকবেন। কিন্তু একতরফা খেলা হবে না।

বুধবার রাজধানীর শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে ২০ দলীয় জোটের শরিক বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টি আয়োজিত রাজনীতিতে ‘গুণগত পরিবর্তন ও আগামীর নির্বাচন’ শীর্ষক এই আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহম্মহ ইবরাহিম বীর প্রতীকের সভাপতিত্বে এবং ঢাকা মহানগর সভাপতি আলী হোসাইন ফরায়েজীর সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন মহাসচিব এমএম আমিনুর রহমান, কল্যাণ পার্টি স্থায়ী কমিটির সদস্য এডভোকেট মাহবুবু, মুহম্মদ ইলিয়াস, চেয়ারম্যান ভাইস সাহিদুর রহমান তামান্না, , যুগ্ম মহাসচিব নুরুল কবির ভুইয়া পিন্টু, অর্থ সম্পাদক এডভোকেট মনিরুল ইসলাম সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক সোহেল মোল্লা, ঢাকা মহনগর সাধারণ সম্পাদক কামারুজ্জাম, সাংগঠনিক সম্পাদক মুসা ময়িা মজুমদার যুব কল্যাণ পার্টির সভাপতি যুবায়েরুল হক ভুইয়া নাহিদ ছাত্র কল্যাণ পার্টির সাধারন সম্পাদক শেক এনামূল হাসান তানিম প্রমুখ।

মির্জা ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রী বলছেন আগামী নির্বাচন হবে সংবিধান মোতাবেক। কিন্তু সংবিধানকে তো আপনারাই কেটেকুটে কাগজে পরিণত করেছেন।

বাংলাদেশ সবচেয়ে কঠিন সময় অতিক্রম করছে এমন দাবি করে মির্জা ফখরুল বলেন, এমন কঠিন সময় আগে কখনো আসেনি। ৭১ সালে যে স্বপ্ন নিয়ে দেশ স্বাধীন করা হয়েছিল সেই স্বপ্ন খান খান হয়ে গেছে। দুঃখের বিষয় মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্বদানকারী এই দলটির  (আওয়ামী লীগ) হাতেই গণতন্ত্র ভুলণ্ঠিত হয়েছে।

প্রধান বিচারপতির এক মন্তব্যের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধান বিচারপতি বলেছেন দেশে আইনের শাসন নেই। বিচার বিভাগের উপর নির্বাহী বিভাগ প্রভাব বিস্তার করছে। এটা একটি বড় অভিযোগ।

 
প্রকাশক: সালেহ মোহাম্মদ রশীদ অলক
সম্পাদকঃ মাহসাব হোসাইন রনি
বার্তাকক্ষঃ ০১৭১১-৪৬০৬০১ | ই-মেইলঃ news.politicsnews24@gmail.com
 
এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি