হলিউডের সেরা একশন মুভি গুলোর তালিকা!

488

হলিউডের সেরা একশন মুভি গুলোর তালিকা!

১৩। G.I. Joe series:

এই মুভি সিরিজের মোট ২ টি মুভি বের হয়েছে। যার মাঝে দুটিই একশন ধর্মী মুভি। এই মুভি গুলোতে অভিনয় করেছেন অনেকেই। তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন- Channing Tatum, Byung-hun Lee, Joseph Gordon-Levitt, Dwayne Johnson (দ্যা রক), Bruce Willis, Adrianne Palicki ইত্যাদি। এই মুভি সিরিজের আরেকটি নতুন মুভি বর্তমানে পোস্ট – প্রডাকশন চলছে। কিছু দিনের মধ্যেই মুক্তি পাবে।

১২। Batman Series:

যারা সুপার হিরো মুভি ভালবাসেন তাদের জন্য ব্যাটমেন হয়তো বহু পরিচিত নাম। এই সিরজ এর  অনেক গুলো মুভিই রয়েছে। তবে সবচেয়ে জনপ্রিয় মুভি গুলো হল The Dark Knight Trilogy এর তিন টি মুভি। যেগুলো- Batman Begins, The Dark knight, The Dark knight Rises। তিনটি মুভিরই ডিরেক্টর ছিলেন জনপ্রিয় পরিচালক ক্রিস্টফার নোলান। আর তিনটি মুভি তেই ব্যাটমেন এর চরিত্রে অভিনয় করেছেন ক্রিস্টিয়ান বেইল। যদি এখনো এই সিরিজ টি না দেখে থাকেন, খুব দ্রুতই দেখে ফেলুন।

১১। Die hard Series:

ডাই হার্ড সিরিজের মোট ৫ টি মুভি রয়েছে। যেগুলো হল- Die Hard, Die  Hard 2, Die Hard with a vengeance, Live free or die hard, A good day to Die hard। সবগুলো মুভিই একশনে ভরপুর। এই মুভিতে জন মেকক্লেইন এর চরিত্রে ব্রুস উইলিস কে দেখা যায়। তাকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রতিকূলতার মাঝে পড়তে হয়। এবং তিনি তা থেকে বেঁচে ফেরেন প্রতিবারই। না দেখে থাকলে, একশন ভরপুর এই মুভি গুলো দেখে ফেলুন, যারা একশন ভালবাসেন।

১০। Bourne Series:

জেসন বুর্ন’ নামটা কি চেনা চেনা লাগে? অনেকেরই চিনে ফেলার কথা তাকে। Bourne মুভি সিরিজের মোট ৫ টি মুভি রয়েছে। যার মধ্যে ৪ টি তে প্রধান চরিত্রে ছিলেন ম্যাট ডেমন। আর একটিতে ছিল জেরেমি রিনার। যার নামে এই মুভির নাম (জেসন বুর্ন) তিনি হলেন একজন CIA গুপ্তঘাতক। তাকে একটি মিশনে পাঠানোর পর সেখানে তিনি ব্যর্থ হন ও স্মৃতি শক্তি হারান।

যার ফলে তাকে খুজে বেরায় অন্য CIA সদস্যরা, তাকে মেরে ফেলার জন্য। তবে সবচেয়ে বড় সমস্যা হল তার স্মৃতি শক্তি হীনতা। তিনি সহজেই কিছু জিনিস ভুলে যান। যা তাকে তার মিশনে বাধা গ্রস্ত করে। তিনি কি পারবেন এই গোলক ধাঁধা থেক বেরিয়ে নিজেকে ফিরে পেতে, যদি তা জানতে চান। তাহলে এই একশন ফিল্ম সিরিজ টি আপনাকে দেখতেই হবে।

৯। James Bond Series:

মুভি জগতে আরেক পরিচিত নাম- জেমস বন্ড। তাকে দেখা যায় ইংল্যান্ড এর সিক্রেট সার্ভিস এর একজন সদস্য হিসেবে। যার কোড নেম হল- 007। এই মুভি সিরিজটির মোট ৩২ টি মুভি বের হয়েছে। আর এসব মুভিতে এক সময় এক জন হলিউড সুপারস্টার অভিনয় করে গেছেন। তবে বন্ড হিসেবে সবচেয়ে আলোচিত নায়ক হলেন- ড্যানিয়েল ক্রেইগ। আপনি যদি এক্সট্রিম একশন আর থ্রিলিং কাহিনী নির্ভর মুভি খুঁজেন তাহলে এটি আপনার জন্য প্রযোজ্য।

৮। The Matrix:

যারা হলিউডের মুভি দেখেন, তাদের কাছেও আরেকটি পরিচিত নাম হল The Matrix। ১৯৯৯ সালে মুক্তি পাওয়া এই মুভিটি এখনও দর্শকদের মন কেড়ে নেয়। এখানে দেখানো হয় মানুষের বিরুদ্ধে মেশিনের যুদ্ধ। তবে বিষয়টি আরো একটু জটিল, কারণ মেশিন গুলো মানুষ রূপী। আর পুরো বিষয়টি জানতে হলে আপনাকে দ্রুত দেখে ফেলতে হবে এই সাইন্স ফিকশন মুভিটি। হলিউডের সেরা একশন মুভি এর তালিকায় এটি নিঃসন্দেহে স্থান পাবেই।

৭। Mission Impossible Series:

টম ক্রুজ এর ভক্তরা অবশ্যই এই সিরিজটি দেখেছেন। মিশন ইম্পসিবল সিরিজটি ও একটি স্পাই থ্রিলার। এখানে দেখা যায় ইম্পসিবল মিশন ফোর্সেস এর সদস্য দের বিভিন্ন কঠিন মিশনে যাওয়া এবং সেগুলো থেকে ফিরে আসার কাহিনি। প্রধান চরিত্রে দেখা যায় টম ক্রুজ কে। এই নিয়ে মোট ৫ টি মুভি বের হয়েছে এই সিরিজ এর। যেগুলো হল- Mission: Impossible, Mission: Impossible 2, Mission: Impossible 3, Mission: Impossible-Ghost Protocol, Mission: Impossible-Rogue Nation

৬। X-Men Series:

এক্স মেন সিরিজটি সুপার হিরো নির্ভর একটি মুভি সিরিজ। এই নিয়ে মোট ৯ টি মুভি বের হয়েছে এই সিরিজ এর। তবে সবচেয়ে আলোচিত মুভি গুলো হচ্ছে  X-Men Origins: Wolverine, X-Men: First ClassThe WolverineX-Men: Days of Future PastX-Men: The Last StandX-Men: Apocalypse ইত্যাদি। এই মুভি গুলোয় X-Men হল একটি সুপারহিরো টিম। অনেকেই অভিনয় করেছেন বিভিন্ন সুপারহিরো এর ভূমিকায় এই মুভি গুলোয়। তবে সবচেয়ে জনপ্রিয় হলেন হিউ জ্যাকমেন, যিনি অভিনয় করেছেন অলভেরিন এর ভূমিকায়।

৫। The Expendables:

দি এক্সপেন্ডেবলস মুভি সিরিজটি হল পিউর একশনে ভরপুর একটি সিরিজ। আর একটি মজার বিষয় হল এই মুভি সিরিজটিকে বলা যায় হলিউড এর একশন তারকার মেলা। মোট তিনটি মুভি বের হয়েছে এই পর্যন্ত এই সিরিজটির। যেগুলোই মোট ৩০ জন এর ও বেশি তারকা অভিনয় করেছেন। বলা চলে, হলিউড এর কোন মুভিতে সবচেয়ে বেশি একশন তারকাদের দেখা মিলে এই সিরিজটিতেই।

প্রধান চরিত্রে দেখা যায় বিখ্যাত একশন সুপারস্টার সিল্ভাস্টার স্ট্যালন কে। আর তার সাথে যারা রয়েছেন তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন- আর্নল্ড শোয়ার্যনিগার, জেট লি, জেসন স্ট্যাথাম, চাক নরিস, ব্রুস উইলিস, হারিসন ফোর্ড, স্টিভ অস্টিন সহ আরো আনেকেই। তো হলিউডের সেরা একশন মুভি দেখতে হলে আজই দেখে ফেলুন এই সিরজ টি।

৪। Kingsman: The secret service:

যারা জেমস বন্ড ভালবাসেন, তারা হয়তো এই মুভিটি কেও ভালবাসবেন। এটিও একটি ব্রিটিশ স্পাই একশন মুভি। এখানে দেখানো হয় কিংসমেননামক একটি সিক্রেট সার্ভিস এর কর্মকাণ্ড। তারা তাদের নতুন সদস্য হিসেবে একজন কে নিয়োগ দেয়ার জন্য কয়েকজন এর মধ্য থেকে সবচেয়ে বেস্ট কে বাছাই করে নেন। তবে ঘটনা মোড় নেয় অন্য দিকে , যখন আরেক দিকে ভিলেন পৃথিবীর জন্য বিরাট বিপদজনক একটি পদক্ষেপ নিতে যায়।

আর তা থামানোই মূল কাজ হয়ে দাঁড়ায় কিংসমেন এর সদস্যদের। যার ফলে জীবন বাজি রেখে মিশনে নেমে পড়েন এক সদস্য ‘এগজি’। ট্যারন এগারটন  কে ‘এগজি’ এর চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায়। তবে আপনি যদি একশন আর এডভেঞ্চার এ ভরপুর কোন মুভি দেখতে চান, তাহলে দেখে নিন কিংসমেনঃ দ্যা সিক্রেট সার্ভিস। ২০১৭ সালে এই মুভির আরেকটি সিকুয়েল মুক্তি পেতে যাচ্ছে।

Gladiator:

২০০০ সালে মুক্তি পায় এই মুভিটি। মুভিটি মুক্তি পাবার প্রায় ১৬ বছর হয়ে গেলেও, এই মুভিটি যেকোন একশন ফ্যান কে মুগ্ধ করবেই। এটি একটি ইতিহাস নির্ভর কাহিনী নিয়ে তৈরি। রাসেল ক্রোয়ী এই মুভির প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন। তাকে রোমান জেনারেল ম্যাক্সিমাস এর ভূমিকায় দেখা যায়। যদিও ঘটনার বিবর্তনে তিনি আর জেনারেল থাকেন না।

রাজার ছেলের বিশ্বাস ঘাতকতায়, তিনি একজন দাসে পরিণত হন। তবে তার প্রতিশোধ নেবার সুপ্ত ইচ্ছা থেকে তিনি ফিরে আসেন আবারো রাজ দরবারে। তবে শেষ পর্যন্ত কি তিনি পারেন তার প্রতিশোধ নিতে নাকি আবারো হেরে যান। তা দেখতে হলে আপনাকে এই মুভিটি দেখতেই হবে।

DeadPool:

ডেডপুল মুভি টি মুক্তি পাবার পরই সারা দুনিয়ায় সাড়া ফেলে দিয়েছে। এই মুভিটিতে দেখা যায়, ওয়েইড উইলসন নামের একজন সাধারণ মানুষকে মরণ ব্যাধি রোগ থেকে মুক্তি দেবার কথা বলে, তাকে নিয়ে আসলে উলটো তার জীবন কে প্রায় ধ্বংস করে দেয়া হয়। তবে, সেই সাথে তিনি একটি ‘সুপার পাওয়ার’ ও লাভ করেন। যার কারণে তাকে একবারে মেরে ফেলা যায় না।

এবং তিনি খুঁজে ফিরেন কিভাবে এই জীবন থেকে তিনি মুক্তি পাবেন। কিন্তু যে তাকে এমন করেছিল তাকে খুঁজতে তাকে অনেক খড়-কুটো পুড়োতে হয়। তবে শেষ পর্যন্ত কি হয় তা দেখতে আপনাকে দেখতে হবে এই একশন মুভি টিকে। ও হ্যাঁ, এই হলিউডের একশন মুভিটিতে কমেডির ছোঁয়াও পাবেন। ডেডপুল  হিসেবে অভিনয় করেছেন রায়ান রেনোল্ডস।

Mad Max: Fury Road:

এই মুভিটি ম্যাড মেক্স সিরিজের ৪র্থ মুভি। মুভিটি দেখা যায়, ভবিষ্যতের পৃথিবীর কাহিনী। যেখানে পানির অভাব খুব বেশি। তবে এমন না যে পানি নেই। যা আছে, সব রয়েছে ঐ এলাকার নেতার কাছে। তবে সমস্যা হচ্ছে ঐ নেতা খুবই খারাপ। সে সহজেই পানির সাপ্লাই দেয় না। যার ফলে সবাই তাদের জীবন নিয়ে পড়ে বিপাকে। ঠিক তখনি সাধারণ মানুষের পক্ষে একজন ওই নেতার বিরুদ্ধে মাথা চাড়া দিয়ে উঠে। তার সাথে যুক্ত হয় নায়িকা।

ততক্ষনে তাদের বিরুদ্ধে ভিলেন এর দল ও এটাক শুরু করে। আর এ নিয়েই এই মুভিটি। যার পুরো টিই ঘটে ধু-ধু মরুভূমির রাস্তায়। যা কিনা এক বিরাট রোড ব্যাটল এ পরিণত হয়। এই মুভিতে একশন ছাড়া আর কিছুই নেই। মুভিটি ২০১৫ সালের হলিউডের সেরা একশন মুভির তালিকায় প্রথম স্থান পেয়েছে। তাই, যারা পিউর একশন পছন্দ করেন তাদের জন্য এটি ১ টি মাস্ট ওয়াচ মুভি।

হলিউডে এত পরিমাণ একশন মুভি রয়েছে যে, তা গুণে শেষ করা যাবে না। এবং এদের মধ্যে সেরা ১০ টি একশন মুভির তালিকা বানানো কঠিন কাজ হয়ে পড়ে। তাই আমরা নিচে আরো কিছু হলিউডের সেরা একশন মুভির তালিকা দিলাম, যেগুলো দেখেও মজা পাবেন।

  1. Taken series
  2. Transformers series
  3. Transporters Series
  4. Crank Series
  5. Avengers series
  6. Iron Man Series
  7. Captain America Series
  8. Django Unchained
  9. 300 Series
  10. Troy

Source: entertainmentmaniac.com